মেইন ম্যেনু

মোটা মানুষের সংখ্যা বাড়ছে মহামারি আকারে

বিশ্বের ৬৪ কোটি ১০ লাখের বেশি মানুষ স্থূলতায় সমস্যায় ভুগছে। বডি মাস ইনডেক্সের(বিএমআই) তথ্য বিশ্লেষণ করে পাওয়া নতুন এক গবেষণায় বিষয়টি উঠে এসেছে।

গবেষণায় বলা হয়, গত ৪০ বছর বিস্ময়করভাবে বিএমআই স্কোর ৩০(স্থূলতা ধরা হয় বিএমআই স্কোর ৩০ হলেই) বা এর বেশি সংখ্যার মানুষ বাড়ছে ব্যাপক হারে। ১৯৭৫ সালের স্থূলকায় মানুষের সংখ্যা ছিল ১০ কোটি ৫০ লাখ। ২০১৪ সালে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৬৪ কোটি ১০ লাখে। প্রতি ১০ জনে একজন পুরুষ এবং প্রতি সাত জনে একজন নারী স্থূলতার সমস্যায় ভুগছেন।

ওজন ও উচ্চতার ওপর ভিত্তি করে একজন ব্যক্তির বিএমআই নির্ধারণ করা হয়। বিএমআই স্কোর ২৫ এর নিচে থাকলে স্বাভাবিক ওজন ধরা হয়। আর বিএমআই স্কোর যদি ৩০ বা তার চেয়ে বেশি হয় তাহলে স্থূলতা হিসেবে ধরা হয়।

লন্ডন ইম্পেরিয়াল কলেজের স্কুল অব পাবলিক হেলথের অধ্যাপক মাজিদ ইজ্জাতি বলেন, বর্তমানে পুরো বিশ্বে মাত্রাতিরিক্ত ওজনের মানুষের সংখ্যা এ যাবৎকালের মধ্যে সবেচেয়ে বেশি। আর তাদের এই অতিরিক্ত ওজন স্বাস্থ্যের জন্য বিরাট হুমকি হয়ে দেখা দিতে পারে। স্থূলতা ওষুধের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা অনেক কঠিন। এর জন্য আন্তর্জাতিকভাবে পদক্ষেপ নেয়াটা জরুরি।

গবেষণা নিবন্ধটি গতকাল বৃহস্পতিবার দ্য লেনসেট মেডিকেল জার্নালে প্রকাশিত হয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং বিশ্বব্যাপী ৭০০ গবেষকদের তথ্য এখানে সন্নিবেশিত করা হয়েছে। ১৮৬টি দেশের দুই কোটি প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তির ওজন এবং উচ্চতার তথ্য পর্যালোচনা করেন গবেষকরা।

এই প্রবণতা চলতে থাকলে ২০২৫ সালের মধ্যে ১৮ শতাংশ পুরুষ এবং ২১ শতাংশ নারী স্থূলতার শিকার হবে।

গবেষণায় পাওয়া গুরুত্বপূর্ণ অন্যান্য তথ্যগুলো হচ্ছে:

১. উন্নত দেশগুলোর মধ্যে জাপানের প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তিদের মধ্যে স্থূলতার পরিমাণ সবচেয়ে কম। আমেরিকাতে এর সংখ্যাটা সবচেয়ে বেশি।

২. চীন এবং যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি স্থূলকায় মানুষ বাস করে।

৩. সুইজারল্যান্ডের নারী এবং বসনিয়ান পুরুষদের মধ্যে স্থূলতার পরিমাণ সবচেয়ে কম।






মন্তব্য চালু নেই