মেইন ম্যেনু

মোটা হওয়ায় কপাল পুড়ছে সুন্দরী বিমানবালাদের

কপাল পুড়ছে মোটাসোটা সুন্দরী বিমানবালাদের। ভারতে রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান সংস্থা এয়ার ইন্ডিয়া কমপক্ষে সোয়াশ’ কেবিন ক্রু বা এয়ার হোস্টেস’কে অতিরিক্ত ওজনের কারণে গ্রাউন্ড-ডিউটিতে সরিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এতে যেসব কেবিন ক্রু বা বিমানসেবিকার ‘বডি মাস ইনডেক্স’ একটা নির্দিষ্ট অঙ্কের চেয়ে বেশি, তারা আর ফ্লাইটে ডিউটি করতে পারবেন না।

শ্রমিক সংগঠনগুলো এয়ার ইন্ডিয়ার এ সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করলেও বেসামরিক পরিবহন খাতের বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এয়ার ইন্ডিয়ার ব্র্যান্ডকে আধুনিক করে তুলতে মোটাসোটা এয়ারহোস্টেসদের সরিয়ে দেয়া ছাড়া কোনো উপায় নেই।

ভারতে এখন আধুনিকমানের অন্তত ছয়-সাতটি চকচকে বেসরকারি এয়ারলাইনের সঙ্গে নিয়মিত পাল্লা দিতে হয় সরকারি সংস্থা এয়ার ইন্ডিয়াকে। কিন্তু এয়ার ইন্ডিয়ার ফ্লাইটে উঠলেই বেশির ভাগ সময় মোটাসোটা, বয়স্ক ও ভারী এয়ারহোস্টেসরাই কেবিনে তাদের স্বাগত জানায়।

যাত্রীদের এ ধরনের অভিযোগ আমলে নিয়ে এয়ার ইন্ডিয়া সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সোয়াশ’রও বেশি ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্ট ও এয়ারহোস্টেসকে অন্য কাজে সরিয়ে দেবে।

প্লেনের ভেতর নড়াচড়ার জায়গা খুব অল্প। সরু আইলের মধ্যে অনেক সময় যাত্রীদের সাহায্য করতে এয়ারহোস্টেসদের বেশ বেগ পেতে হয়। সেখানে যদি তারা নিজেরাই মোটাসোটা হন তাহলে তো মুশকিল বটেই!

কিন্তু দেশের শ্রমিক সংগঠনগুলো এরই মধ্যে এয়ার ইন্ডিয়ার এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে। এর আগে তারা একটা বয়সের বেশি এয়ারহোস্টেসের বসিয়ে দেয়ার বিরুদ্ধে আন্দোলন করেছিল, এখন তাদের বক্তব্য এয়ার ইন্ডিয়া ওজনের অজুহাতে তাদের সরিয়ে দিতে চাচ্ছে।

কিন্তু ট্রেড ইউনিয়নগুলোর বক্তব্যকে বিন্দুমাত্র আমল না দিয়ে এভিয়েশন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, লোকসানে থাকা এয়ার ইন্ডিয়াকে চাঙ্গা করতে হলে এ ধরনের কঠোর সিদ্ধান্ত নিতেই হবে।

সেন্টার ফর এশিয়া প্যাসিফিক এভিয়েশনের ডিরেক্টর কপিল কাউলের কথায়, গ্রাহক-পরিষেবানির্ভর এ শিল্পে বেশি ওজনের কেবিন ক্রু রাখা যায় না। বেশি ওজনের একজন কেবিন ক্রু এয়ারলাইনের ফিটনেস বা স্বাস্থ্য সম্পর্কে মোটেই ভালো বিজ্ঞাপন নয়।






মন্তব্য চালু নেই