মেইন ম্যেনু

মোদিকে যা লিখে চিঠি দিলো তরুণী!

বড় হয়ে ডাক্তার হতে চায় মশাল। কিন্তু আইনের জটে তার সেই ইচ্ছা পূর্ণ হবে কি না, সেটা জানেন না কেউই। জটিলতা কাটাতে এখন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শরণাপণ্ণ হল এবারের সি বি এস ই পরীক্ষায় এই কৃতী ছাত্রী। দু’‌বছর আগে ধর্মীয় টানাপোড়েনের কারণে পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশ থেকে মেয়ে মশালকে নিয়ে পালিয়ে এসেছিলেন তার মা‌-‌বাবা। জয়পুরে এসে পড়াশুনো শুরু করে মশাল।

এবছরের সি বি এস ই পরীক্ষায় ৯১ শতাংশ নম্বর নিয়ে পাশ করেছে সে। তবুও মশালের চিকিৎসক হওয়ার ইচ্ছে এখনও বিশ বাঁও জলে। কারণ ভারতীয় আইন অনুযায়ী, মেডিক্যাল প্রবেশিকা পরীক্ষায় ভারতীয় নাগরিক ছাড়া বসতে পারে শুধু অনাবাসী ভারতীয়রা। মশাল ভারতে রয়েছে উদ্বাস্তু হিসাবে। জয়পুরে মশালের বাবা ‘‌অ্যানাস্থেসিস্ট’‌-‌এর কাজ করেন। তাঁদের কোনও ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নেই। চেষ্টা করেও পাওয়া যাচ্ছে না ড্রাইভিং লাইসেন্স।

মশাল বলেছে,‘‌এবছর প্রবেশিকা দিতে পারিনি। কিন্তু আমি ডাক্তারই হতে চাই। আমার মা বাবা প্রধানমন্ত্রীর কাছে সাহায্য চেয়ে চিঠি লিখেছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংকেও চিঠি লেখা হয়েছে। যে কোনও উপায়ে হোক পরের বছর প্রবেশিকা দিতে চাই।’‌‌






মন্তব্য চালু নেই