মেইন ম্যেনু

মোহাম্মদপুরে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করে ডিবির অভিযান চলছে

রাজধানীর মোহাম্মদপুরে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালাচ্ছে মহানরগ গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সেখান থেকে পাঁচ ধরনের বিপুল পরিমাণ বোমা উদ্ধার করেছে ডিবি। উদ্ধার হওয়া বোমাগুলো পূর্বের উদ্ধারকৃত বোমার চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালী বলেও দাবি করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট।

শনিবার দুপুরে ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।

এসময় তার সঙ্গে আরো উপস্থিত ছিলেন, ডিবি’র দক্ষিণ বিভাগের ডিসি মাশরুকুর রহমান খালিদ এবং তেজগাঁও বিভাগের ডিসি বিপ্লব কুমার সরকারসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

পরিদর্শন শেষে মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘মোহাম্মদপুরে নবোদয় হাউজিংয়ের বি ব্লকের ২৮ নম্বরে আলহাজ মওলানা আব্দুল মালেকের বাড়িতে ভাড়া থেকে জঙ্গিরা তাদের বোমা তৈরির কারখানা গড়ে তুলেছিল। শুক্রবার রাতভর অভিযান চালিয়ে বোমা তৈরির কারখানাটির সন্ধান পায় গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। সেখান থেকে বোমা তৈরির বিপুল পরিমাণ সরঞ্জাম জব্দ করা হয়। শনিবার সকালে সেখান থেকে উদ্ধার করা হয় আরও বিপুল সংখ্যক বোমা ও বিস্ফোরক। বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট এসেছে। কিছুক্ষণের মধ্যে জব্দকৃত বোমা ও বিস্ফোরকগুলো নিষ্ক্রিয় করা হবে।’

তিনি আরো জানান, ‘শুক্রবার সন্ধ্যায় বাড্ডা থেকে দুই জঙ্গিকে আটক করা হয়। তারা হলেন, কামাল ওরফে শাহীন (২৬) এবং শাহ আলম ওরফে সালাউদ্দিন (৩০)। মোহাম্মদপুরের এই বাড়িতে শাহ আলম ওরফে সালাউদ্দিন ভাড়া থাকেন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেই এ বাসায় বোমা তৈরির কারখানার তথ্য পাওয়া যায়।

অন্যজনকে (কামাল) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে আটক করা হয়। কামাল জানান, ‘বাড্ডা তাদের হেড অফিস এবং অপর জঙ্গি শাহ আলম ওরফে সালাউদ্দিন মোহাম্মদপুরের বাড়িটিতে থাকেন, যেখানে তাদের বোমা তৈরির কারখানা।’ পরে রাত সাড়ে ১০টা থেকে রাত আড়াইটা পর্যন্ত টানা অভিযান চলে মোহাম্মদপুরের বাড়িটিতে। আলো স্বল্পতার কারণে ফের অভিযান শুরু করা হয় শনিবার সকালে। গ্রেফতার হওয়া দুই জঙ্গির বাসার আলামত দেখে তারা আনসারউল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য বলেও ধারণা করছেন মনিরুল ইসলাম।

“বিগত সময়ের অভিযানগুলোতে যে ধরনের বোমা পাওয়া গিয়েছিলো, সেগুলোর চেয়ে এবারের অভিযানে উদ্ধার হওয়া বোমাগুলো অনেক শক্তিশালী। এখানে আমরা পাঁচ ধরনের বোমা পেয়েছি। আর এগুলো আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ফর্মুলায় তৈরি।”

তিনি আরও বলেন, ‘অভিযানের কারণে নবোদয় হাউজিং এলাকায় সাময়িক বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। অভিযান শেষ হলে বিদ্যুৎ সংযোগ ফের চালু করা হবে।’

মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে নতুন কোনো জঙ্গিকে গ্রেফতার করা না গেলেও ওই বাসার মালিক মওলানা আব্দুল মালেককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক রাখা হয়েছে। সন্দেহভাজন আরও কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে বলেও জানান মনিরুল ইসলাম।






মন্তব্য চালু নেই