মেইন ম্যেনু

ম্যারিয়ট হোটেলেও পোশাক বদলানোর ছবি তুলে ইন্টারনেটে!!

স্নান করে পোশাক বদলাচ্ছিলেন নামী আন্তর্জাতিক স্পোর্টস চ্যানেলের মহিলা সাংবাদিক এরিন অ্যান্ড্রুজ। ম্যারিয়ট হোটেলের ঘরে পোশাক বদলানোর সময় তাঁর নগ্ন হওয়ার দৃশ্য রেকর্ড হয়ে গেল ক্যামেরায়। ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ল হু হু করে। জনপ্রিয় স্পোর্টসকাস্টার এরিন অ্যান্ড্রুজের মাথায় হাত! ম্যারিয়টের মতো হোটেলের ঘরেও এত অরক্ষিত ব্যক্তিগত মুহূর্ত! সাড়ে সাত কোটি ডলার ক্ষতিপূরণ চেয়ে ম্যারিয়টের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন এরিন অ্যান্ড্রুজ। কিন্তু তাঁর নগ্ন হওয়ার ভিডিও বছরের পর বছর ধরে রোজ তাঁর অপমানের কারণ হয়ে উঠছে।

এরিন অ্যান্ড্রুজের নগ্ন ভিডিও শ্যুট হওয়ার ঘটনা খুব সাম্প্রতিক নয়। ২০০৮ সালে আমেরিকার টেনেসি প্রদেশের ন্যাশভিলে ম্যারিয়ট হোটেলে এই ঘটনা ঘটেছিল। তার এক বছর পর নগ্ন ভিডিওটি ইন্টারনেটে ছাড়া হয়। মোবাইল ক্যামেরায় এরিন অ্যান্ড্রুজের পোশাক বদলানোর ছবি যে তুলেছিল, তার অপরাধ প্রমাণিত হয়েছে। তাকে জেলেও যেতে হয়েছে। কিন্তু ম্যারিয়ট হোটেল কর্তৃপক্ষও দায় এড়াতে পারে না বলে এরিন অ্যান্ড্রুজের দাবি। তাই ওই বহুজাতিক হোটেল চেইনের বিরুদ্ধেও তিনি মামলা করেন বিপুল ক্ষতিপূরণ চেয়ে। টেনেসি’র আদালতে সেই মামলা এখনও চলছে। সোমবার শুনানি ছিল। উইটনেস বক্সে দাঁড়িয়ে এরিন অ্যান্ড্রুজ কান্নায় ভেঙে পড়েন সে দিন। তার পরই নগ্ন ভিডিওর বিষয়টি নিয়ে আবার হইচই শুরু হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই