মেইন ম্যেনু

ময়লা জমে থাকা কিচেন সিঙ্ক পরিষ্কারের ছোট্ট উপায়টি (দেখুন ভিডিওতে)

বিভিন্ন বাড়িতেই সাপ্লাইয়ের পানির সাথে মিশে থাকে বিভিন্ন ভারি ধাতু এবং ক্ষারীয় রাসায়নিক। যার ফলে স্টেইনলেস স্টিলের সিঙ্কে খুব সহজেই ময়লা জমে যায়, বিশ্রী দাগ পড়ে। আপনি ভাবতে পারেন আপনার সিঙ্কটাকে পরিষ্কার করাটা এক্ষেত্রে সম্ভব না, অথবা এর জন্য অনেক সময় ও শ্রম খরচ হবে। কিন্তু না। আপনার কিচেনেই আছে এমন একটি উপাদান যা ব্যবহার করে আপনি খুব সহজে পরিষ্কার করে ফেলতে পারেন সিঙ্কে পড়া এসব দাগ। চলুন, দেখে নেই প্রণালীটি।

এই সিক্রেট উপাদানটি হলো ভিনেগার। ভিনেগার হলো এমন একটা ক্লিনার যা সারা ঘরে অনেক কিছুই পরিষ্কারের কাজে আসে। বিশেষ করে কিচেনের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার ক্ষেত্রে। স্টেইনলেস স্টিলের ওপর ভারি ধাতু বা ক্ষারীয় পানির প্রভাবে যে দাগ পড়ে তা ওঠাতে বিশেষ পটু এই ভিনেগার।

কীভাবে ব্যবহার কবেন এই ভিনেগার? একটা কাপড় ভিনেগারে ভিজিয়ে নিন এবং পুরো সিঙ্কের ওপরটা মুছে দিন। সিঙ্কের যেখানে বেশি ময়লা জমে আছে সেখানে এই ভেজা কাপড়টা দিয়ে ঢেকে রেখে দিন ঘণ্টাখানেক। এরপর একটা পুরনো, নরম স্পঞ্জ দিয়ে স্ক্রাব করে নিন, ময়লাটা উঠে আসবে সহজেই। যদি এ সময়ে কিছু ময়লা রয়ে যায়, তবে আরও কিছুক্ষণ সেখানে ভিনেগারে ভেজানো কাপড়টা দিয়ে ঢেকে রাখুন। ঘন্টাখানেক পর আবার স্পঞ্জ দিয়ে স্ক্রাব করে নিন।

মনে রাখবেন, নতুন স্পঞ্জ দিয়ে স্ক্রাব করবেন না। এতে স্টিলের ওপর স্ক্র্যাছ পড়তে পারে। ব্যবহার করুন ব্যবহার করে নরম হয়ে যাওয়া একটি স্পঞ্জ। এছাড়া এই স্পঞ্জ শুধুমাত্র সিঙ্কে ব্যবহার করুন। কখনোই মার্বেল বা গ্রানাইটের ওপর ব্যবহার করবেন না। এতে তার ওপর দাগ পড়ে যাবে। স্টোনের টাইলসের ওপরেও ভিনেগার প্রয়োগ করা থেকে বিরত থাকুন। এই প্রক্রিয়াটি দেখে নিন এই ভিডিওটিতে।

এছাড়াও আরও কিছু টিপস রইলো সিঙ্ক পরিষ্কারের জন্য:

১) ভেজা সিঙ্কের ওপরে বেকিং সোডা ছিটিয়ে দিন। এবার একটা ব্রাশ দিয়ে ঘষে এটাকে পেস্টের মতো ছড়িয়ে দিন পুরো সিঙ্কে। এরপর পেপার টাওয়েল ভিনেগারে ভিজিয়ে পুরো সিঙ্ক ঢেকে রাখুন ২০ মিনিট। তারপর সাবান পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন সিঙ্ক। নতুনের মতো চকচকে হয়ে যাবে।

২) সিঙ্কের ড্রেইনে খাবার আটকে গেলে এতেও কাজে আসবে বেকিং সোডা এবং ভিনেগার। আধা কাপ বেকিং সোডা ড্রেইনে ঢেলে দিন। সাবধানে এক কাপ ভিনেগার এর ওপর ঢালুন। মিনিট দশেক এটায় বুদবুদ উঠবে। এরপর চার কাপ গরম পানি ঢেলে দিন। সিঙ্ক খুলে যাবে। প্রতি মাসে একবার এই কাজটি করলে ড্রেইন পরিষ্কার থাকবে।

৩) ভিনেগার ও বেকিং সোডা দিয়ে পরিষ্কারের পর লেবু বা কমলার খোসা দিয়ে পুরো সিঙ্ক মুছে নিন। এতে মিষ্টি একটা সুগন্ধ ছড়িয়ে পড়বে কিচেনে।

৪) সিঙ্ক চকচকে রাখতে একটা পেপার টাওয়েলে অলিভ অয়েল নিয়ে সিঙ্ক মুছে নিতে পারেন।






মন্তব্য চালু নেই