মেইন ম্যেনু

যকৃতের ক্ষতি করে গ্রিন টি!

গ্রিন টি উপকারী পানীয় হিসেবেই পরিচিত। সম্প্রতি এর ক্ষতিকর দিক দেখে আতকে উঠেছেন চিকিৎসকরা। ওজন কমানোর জন্য অধিক গ্রিন টি গ্রহণের ফলে মানুষ ভুগতে পারে যকৃতের সমস্যায়ও। চিকিৎসকদের মতে, কিশোর বয়সে দিনে তিন বার বা তার অধিক গ্রিন টি গ্রহণের কারণে হেপাটাইটিসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে এবং যকৃতের ক্ষতি হয়।

ইয়েমেনের ১৬ বছর বয়সী এক কিশোরী বমি বমি ভাব, পাকস্থলি এবং হাড়ের সংযোগস্থলে ব্যথা ইত্যাদি সমস্যায় ভুগছিল।

মূত্রনালীতে সংক্রমণের কারণে এমন হতে পারে ভেবে চিকিৎসকরা তাকে এন্টিবায়োটিক দিয়ে বাসায় পাঠিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু তার শারিরীক অবস্থা ক্রমশ খারাপের দিকে যাচ্ছিল।

বার্মিংহাম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর দেখা গেছে, মেয়েটি জন্ডিসে আক্রান্ত। এমনকি হেপাটাইটিসের সমস্যাও রয়েছে। এর কারণ হিসেবে গ্রীন টির প্রভাবকেই দায়ী করেছেন চিকিৎসকরা।

ভাইরাস বা এলকোহলের ক্ষতিকর প্রভাবে মানুষ হেপাটাইটিসে আক্রান্ত হয়। কিন্তু মেয়েটি কোন এলকোহল গ্রহণ করেনি। প্যারাসিটামল কিংবা কোন অবৈধ ওষুধও নেয়নি। দেশের বাইরেও যায়নি, যে হেপাটাইটিসের জীবাণু আক্রমণ করবে।

ওজন কমানোর জন্য ইন্টারনেটে চাইনিজ গ্রীন টি অর্ডার করার কথা চিকিৎসকদের জানিয়েছে সে। দিনে তিনবার এই চা পান করছে শুনে চিকিৎসকরা তাকে দ্রুত গ্রীন টি পান বন্ধ করতে বলেছেন।

গ্রীন টির উপাদানগুলোর উপর গবেষণা চালিয়ে ক্যামেলিয়া সিনেসিস নামক একটি পদার্থ পাওয়া গেছে, যার কারণে হেপাটাইটিস এবং জন্ডিশে আক্রান্ত হয় মানুষ।

হাসপাতালে কিছুদিন রাখার পর কিশোরীকে বাড়ি পাঠানো হয় এবং দু’মাস পরই সে সুস্থ হয়ে গেছে।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই