মেইন ম্যেনু

যত খুশি ব্যক্তিগত গাড়ি নয়, আসছে আইন

ব্যক্তিগত বা পরিবারের ব্যবহারের জন্য ইচ্ছেমতো গাড়ি কেনা যাবে না। পরিবার প্রতি গাড়ির সংখ্যা নির্দিষ্ট করে দিতে আইন করতে যাচ্ছে সরকার। এছাড়া ঢাকা শহরের যানজট নিরসন ও নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করতে ২০ বছরের বেশি পুরনো বাস-মিনিবাস ও ২৫ বছরের অধিক পুরনো পণ্যবাহী যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

সোমবার সংসদে এ কথা জানান সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন। মোটর ভেহিকেল অর্ডিন্যান্স-১৯৮৩ এর পরিবর্তে দুটি ভিন্ন আইন করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

রাতে জাতীয় সংসদে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য হাজী মো. সেলিমের এ বিষয়ক এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ আইন-২০১৫ ও সড়ক পরিবহন আইন-২০১৫ প্রণয়নের কার্যক্রম চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। খসড়া সড়ক পরিবহন আইন-২০১৫ তে পরিবার প্রতি গাড়ির সংখ্যার ঊর্ধ্বসীমা নির্ধারণের প্রস্তাব রাখা হয়েছে।

এছাড়া পুরাতন জরাজীর্ণ ট্যাক্সিক্যাবের পরিবর্তে মহানগরীতে আধুনিক মানসম্মত ট্যাক্সিক্যাব সার্ভিস চালু করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

দিনাজপুর-৬ আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য শিবলী সাদিকের অপর এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী, চালকরা স্টিয়ারিং ধরেই বেপরোয়া গাড়ি চালায়। তারা পথের রাজা হয়ে যায়। কোনো নিয়মশৃঙ্খলা মানতে চায় না।

মন্ত্রী বলেন, রংপুর থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু হয়ে ঢাকার রাস্তায় ইঞ্জিনিয়ারিং সমস্যা নেই। প্রথমেই দেখা উচিত, ইঞ্জিনিয়ারিং সমস্যা আছে কি না। দ্বিতীয়ত হচ্ছে, এনফোর্সমেন্টের সমস্যা। অনেক সময় ঘন কুয়াশার কারণেও দুর্ঘটনা হচ্ছে।

মন্ত্রী বলেন, চালকদের আরো বেশি মনোযোগী হতে হবে। তাদের আরো বেশি প্রশিক্ষণ দরকার। চালকরা অনেক সময় স্টিয়ারিং ধরেই পথের রাজা হয়ে যায় এবং তারা নিয়মশৃংখলা মানতে চায় না। তারা বেপরোয়া ড্রাইভিং করে।

এ ব্যাপারে আমরা মালিক-শ্রমিকসহ স্টেক হোল্ডারদের নিয়ে ঘন ঘন বৈঠক করছি। পাশাপাশি প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়ার ব্যবস্থা নিচ্ছি- যোগ করেন সেতু মন্ত্রী।






মন্তব্য চালু নেই