মেইন ম্যেনু

যাদের জন্য আদা না খাওয়াই ভালো!

প্রাচীনকাল থেকে ঘরোয়া ঔষধ হিসেবে আদার ব্যবহার হয়ে আসছে। ঠাণ্ডা কাশি থেকে শুরু করে হাত-পায়ের ব্যথা দূর করতে আদা অনেক বেশি কার্যকরী। এমনকি ওজন কমাতেও আদা খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন বিশেজ্ঞরা। কিন্তু আপনি জানেন কি, কিছু মানুষের জন্য আদা খাওয়া অনেক ভয়ংকর প্রমাণিত হতে পারে! আপনি হয়তো মনে করছেন আদা প্রাকৃতিক মশলা, এর আবার ক্ষতিকর দিক কী আছে? কিন্তু আদতেই কারো কারো জন্য আদা জিনিসটি না খাওয়াই ভালো!

১। গর্ভবতী মহিলাদের জন্য

গর্ভবতী মহিলাদের আদা খাওয়া একদমই উচিত নয়। আদাতে প্রচুর পরিমাণে প্রাকৃতিক উত্তেজক আছে। যা অনেক সময় মিসক্যারেজ বা প্রিম্যাচিউর বাচ্চা জন্ম দিয়ে থাকে। তাই এই সময় আদা বা আদা জাতীয় খাবার এড়িয়ে যাওয়া উচিত।

২। যাদের ওজন কম

ওজন কমানোর অন্যতম উপাদান হল আদা। এটি মেটাবলিজম বৃদ্ধি করে খাওয়ার রুচি কমিয়ে দেয়। এটি দেহের ক্যালরি পোড়াতে সাহায্য করে। এই সকল কারণে ডায়েট লিস্টে আদা রাখা হয়। কিন্তু আপনি যদি ওজন বাড়াতে চান, আপনার ওজন কম হয়ে থাকে, তবে আদা খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। আদা আপনার ওজন আরও কমিয়ে দেবে।

৩। রক্তে সমস্যা থাকলে

আদা রক্তে প্রদাহ বৃদ্ধি করে রক্তকে উদ্দীপত করে থাকে। কিন্তু যাদের হিমোফিলিয়া রক্ত রোগ আছে তাদের জন্য এটি ভয়ংকর হতে পারে। যারা বিভিন্ন রক্ত রোগের ঔষধ খাছেন, তারা আদা খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।

৪। যারা ঔষধ খাচ্ছেন

যারা কোন নিদিষ্ট রোগের জন্য ঔষধ খাচ্ছেন, তারা আদা খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। আদার উপাদান ঔষধের সাথে মিশে শরীরে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে। এটি রক্ত কনিকা বৃদ্ধি করতে পারে। এমনকি ব্লাড প্রেশার, ইনসুলিনও বৃদ্ধি করে দিতে পারে।

আদা স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী। কিন্তু এই সকল মানুষদের আদা এড়িয়া চলা ভাল।






মন্তব্য চালু নেই