মেইন ম্যেনু

যাদের ফ্রিজ নেই তারা কোরবানীর মাংস কিভাবে সংরক্ষণ করবেন এবং কতদিন রাখা যাবে?

প্রায় সারাদিন ধরেই সবার ঘরে চলবে কোরবানির মাংস রান্নার নানা আয়োজন। কিন্তু এ ঈদে মাংস বেশি হওয়ায় তা সংরক্ষণ করা বেশ কঠিন হয়ে পড়ে। যাদের ফ্রিজ আছে তাদের কোনো চিন্তা নেই। কিন্তু যাদের ফ্রিজ নেই, তারা মাংস সংরক্ষণ করবেন কীভাবে? আবার মাংস যদি সঠিক উপায়ে সংরক্ষণ করা না হয় তাহলে খুব দ্রুতই তা নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাই সঠিক উপায়ে মাংস সংরক্ষণের পদ্ধতি জানা খুব দরকার।
পাঠকদের সুবিধার্থে কোরবানির মাংস সঠিকভাবে সংরক্ষণের কিছু সহজ পদ্ধতি জানিয়ে দেয়া হল।ফ্রিজে রেখে মাংস সংরক্ষণ
সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি হলো ফ্রিজে রেখে মাংস সংরক্ষণ করা। কিন্তু ফ্রিজে রেখে মাংস সংরক্ষণ করতে হলেও কিছু নিয়ম মেনে চলতে হয়।
– মাংস সংরক্ষণ করার আগে প্রথম ধাপ হলো ফ্রিজ পরিষ্কার করা। ঈদের আগের দিন ফ্রিজ বন্ধ করে ভেতরের সব মাছ, মাংস বের করে ভেতরটা ভালোমতো পরিষ্কার করে নিন। কারণ মাছ, মাংস রাখতে রাখতে ফ্রিজের ভেতরে একটা বাজে গন্ধ হয়ে যায়। তাই ঈদের আগে ফ্রিজ পরিষ্কার না করে মাংস সংরক্ষণ করলে সেই মাংসে বাজে গন্ধ হওয়ার আশঙ্কা থাকে।

মাংস সংরক্ষণের আগে তা পানি দিয়ে ধুয়ে রক্ত পরিষ্কার করে নিন। এবার বড় চালনিতে করে মাংসের পানি ঝরিয়ে ফ্যানের নিচে রেখে শুকাতে দিন। সব পানি ঝরে গেলে পলিথিনের প্যাকেটে ভরে মাংস ফ্রিজে সংরক্ষণ করুন।

– মাংস যদি ধুতে না চান তাহলে পরিষ্কার শুকনা কাপড় দিয়ে মাংসের গায়ে লেগে থাকা রক্ত ভালমতো মুছে নিন। এবার পলিথিনে করে ফ্রিজে মাংস সংরক্ষণ করুন।

– ফ্রিজে মাংস সংরক্ষণ করার জন্য যে পলিথিন ব্যবহার করবেন তা একটু মোটা হওয়াই ভালো। তাহলে ফ্রিজ থেকে মাংস বের করার সময় প্যাকেট ছিঁড়ে যাবে না।

– মাঝে মাঝে ফ্রিজে রাখা প্যাকেট গুলো একটু নাড়াচাড়া করুন। এতে করে প্যাকেট একটার সাথে অন্যটা লেগে যাবে না।

– মাংস প্যাকেট করে ফ্রিজের ভেতর রাখার সময় ২ প্যাকেটের মাঝে মোটা কাগজ বা পাতলা কাঠের টুকরা দিতে পারেন। এতে মাংসের প্যাকেট একটার গায়ের সাথে আরেকটা এঁটে যাবার চিন্তা থাকবে না।

– মাংস সংরক্ষণ করার জন্য অবশ্যই পরিষ্কার পলিথিন ব্যবহার করুন। আগে ব্যবহার করা হয়েছে এমন পলিথিন না নেওয়াই ভালো, কারণ এতে মাংসে গন্ধ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
– ফ্রিজে মাংস রাখার পর এর তাপমাত্রা বাড়িয়ে দিন। তাহলে মাংস দ্রুত শক্ত হবে।






মন্তব্য চালু নেই