মেইন ম্যেনু

যুক্তরাষ্ট্রে কিশোরী নির্যাতনকারী পুলিশের পদত্যাগ

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে এক কৃষ্ণাঙ্গ কিশোরীকে নির্যাতন করা পুলিশ কর্মকর্তা মঙ্গলবার পদত্যাগ করেছেন। ঘটনাটির ভিডিও প্রকাশ ও বিক্ষোভের পর পদত্যাগ করলেন তিনি। খবর বিবিসির।

এরিক ক্যাসেবোল্ট (৪১) নামক ওই পুলিশ কর্মকর্তা ‘নিজ ইচ্ছায়’ পদত্যাগ করেছেন বলে জানিয়েছেন। এর আগে তাকে বাধ্যতামূলক ছুটি দেওয়া হয়েছিল। প্রায় ১০ বছর পুলিশ বিভাগে চাকরি করার পর পদত্যাগ করলেন তিনি।

টেক্সাসের ম্যাককিনি এলাকায় গত শুক্রবার ১৫ বছর বয়সী ডাজেরিয়া ব্যাক্টনের চুল ধরে মাটিতে শোয়ান ওই শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তা। এরপর ডাজেরিয়াকে উপুড় করে তার পিঠে হাঁটু চেপে বসে থাকেন এরিক।

এর আগে বেশ কয়েকজন কৃষ্ণাঙ্গ তরুণকে মাটিতে হাঁটু গেড়ে বসতে ও শুয়ে পড়তে বাধ্য করেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা। উপস্থিত লোকজন এ ঘটনাগুলোর ভিডিও ধারণ করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে দেয়।

Police-quits-(2)

এরপরই বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা ও বিক্ষোভ প্রদর্শিত হয়।

এক সংবাদ সম্মেলনে মঙ্গলবার ম্যাককিনি পুলিশ প্রধান গ্রেগ কনলে বলেন, ওই পুলিশ কর্মকর্তা নিজ ইচ্ছায় এ ঘটনা ঘটিয়েছেন। আমাদের পদ্ধতি, প্রশিক্ষণ ও রীতি এ ধরনের কর্মকাণ্ডকে সমর্থন করে না।

তিনি আরও বলেন, ঘটনার সময় সেখানে ১২ পুলিশ কর্মকর্তা ছিলেন। বাকি ১১ জন তাদের প্রশিক্ষণ অনুযায়ী দায়িত্ব পালন করেছেন।

ওই ঘটনা সম্পর্কে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, একটি পুল পার্টিতে বিশৃঙ্খলার খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে আসেন। সেখানে অনুমতি ছাড়াই কিছু লোক প্রবেশ করে আর বের হচ্ছে না বলে অভিযোগ ছিল।






মন্তব্য চালু নেই