মেইন ম্যেনু

যুগলদের যৌনজীবন ক্ষতি করছে ফেসবুক

ফেসবুক ও এর মতো বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে থাকেন অনেকে। কিন্তু বেশি ব্যবহারে নানা সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে- বিভিন্ন গবেষণায় আগেই বলা হয়েছে।

তবে সম্প্রতি নতুন এক গবেষণায় বলা হয়েছে, বিভিন্ন যুবক-যুবতী এখন স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট পিসির দিকে ঝুঁকছেন, যা তাদের যৌনজীবনে মারাত্মক প্রভাব ফেলছে। আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বুঁদ হয়ে থাকায় অনেকে তাদের যৌনসম্পর্ক ও অন্যান্য বিষয়ে খুব একটা আগ্রহী হচ্ছেন না। প্রযুক্তির সঙ্গে বেশি অন্তরঙ্গ তাদের শারীরিক সম্পর্কে ব্যাপক খারাপ প্রভাব পড়ছে।

মুম্বাইয়ের প্রখ্যাত যৌন বিষয়ক চিকিৎসক প্রকাশ কোথারি কোথারি বলেন, ‘হঠাৎ আমার কাছে পরামর্শ নিতে যুগলদের বিশেষ করে পেশাজীবী তরুণ-তরুণীদের ঢল নেমেছে। সারা রাত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ডুবে থাকা ওই যুগলদের যৌন চাহিদা কমে যাওয়ার পরই চিকিৎসকের শরানপন্ন হয়েছেন।’

সংবাদমাধ্যম আইএএনএসকে কোথারি জানান, বর্তমানে ২০ যুগলকে যারা গভীর রাতে সামাজিক যোগাযোগ ব্যবহারের ফলে যৌনকাজে আগ্রহ হারিয়েছে, চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।’

নয়া দিল্লির মানসিক স্বাস্থ্য ও আচরণগত বিজ্ঞানের মহাপরিচালক সামির পারিখা বলেন, ‘যখন যুবক-যুবতীরা অফিস করেন এবং বিরতিহীনভাবে স্মার্টফোন ব্যবহার করেন, তখন তা্রা তাদের পার্টনার ও পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করতে পারেন না। ফলে তাদের সম্পর্কে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। ভালো সম্পর্ক বজায় রাখার জন্য একসঙ্গে প্রচুর সময় ব্যয় করতে হয় যুগলদের। এ সময় তারা তাদের ভিন্নমত, অনুভূতি ও বিষয়গুলো শেয়ার এবং এতে মনযোগ দিতে পারেন।

সম্পতি অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ইউরোপের ২৪ হাজার বিবাহিত যুগলের ওপর একটি গবেষণায় চালিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, সামাজিক মাধ্যমে নিজের চেয়ে অন্যের জীবনযাপনের বিষয় সংশ্লিষ্ট বিষয় পড়তে ভালোবাসেন তারা। এছাড়া তারা অনেক সময় হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েন। ফলে তাদের মধ্যে যৌনকাজে অনীহা তৈরি হয়।

তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।






মন্তব্য চালু নেই