মেইন ম্যেনু

যুব বিশ্বকাপে খেলতে আসছে না অস্ট্রেলিয়া

নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ খেলতে বাংলাদেশে আসছে না অস্ট্রেলিয়া যুব ক্রিকেট দল। একই কারণে গত সেপ্টেম্বরে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ বাতিলের পর এবার যুব ক্রিকেট দলের বিশ্বকাপ থেকেও নাম প্রত্যাহার করে নিল দলটি। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী জেমস সাদারল্যান্ড মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে একথা জানিয়েছেন। আগামী ২৭ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়ে ১৪ ফেব্রুয়ারি ফাইনাল ম্যাচের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এই টুর্নামেন্ট।

বাংলাদেশে দুটি টেস্ট খেলার জন্য গত সেপ্টেম্বরে আসার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়া জাতীয় ক্রিকেট দলের। তবে হঠাৎ করেই দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে নিরাপত্তা সংক্রান্ত উদ্বেগের কারণে সেই সফর বাতিল করেছিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। যদিও নিরাপত্তা ঝুঁকির অজুহাত তোলা সত্ত্বেও গত নভেম্বরে ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইয়ের একটি ম্যাচ খেলে গেছে অস্ট্রেলিয়া জাতীয় ফুটবল দল। তখন তাদের অজুহাত ছিল দীর্ঘমেয়াদী সফরে ঝুঁকি বেশি থাকে। তাই সময় সংক্ষিপ্ত করে ২৪ ঘণ্টারও কম সময় ঢাকায় অবস্থান করে ফিরে গিয়েছিল সকারুরা।

গত সপ্তাহে আইসিসির নিরাপত্তা দলের সঙ্গে বাংলাদেশে এসেছিলেন ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার নিরাপত্তা প্রদান সিন ক্যারল। তার ফিরে যাওয়ার পর মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে তারা বাংলাদেশে অনূর্ধ্ব-১৯ দল না পাঠানোর সিদ্ধান্ত জানায়। সাদারল্যান্ড বলেন, ‘আমরা সবসময় অস্ট্রেলিয়া দল ও কর্মকর্তাদের নিরাপত্তার বিষয়টি সবার উপরে প্রাধান্য দিয়ে থাকি। তাই আমরা বেশ কয়েকদিন আইসিসির নিরাপত্তা উপদেষ্টার সঙ্গে বাংলাদেশের নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে কাজ করেছি। সরকারের পরামর্শ অনুযায়ী আমাদের খেলোয়াড়, কর্মকর্তা ও খেলোয়াড়দের অভিভাবকদের পাঠানোর আগে পরিস্থিতি পর্যালোচনায় সর্বাত্মক ব্যবস্থা নিয়েছি।’

তবে দেশটির সরকার থেকে নিরাপত্তা ঝুঁকি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশের পরই কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে বলে জানান সাদারল্যান্ড। তিনি বলেন, ‘দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমাদের সরকারের পক্ষ থেকে পরামর্শ দেয়া হয়েছে যে বাংলাদেশে অস্ট্রেলিয়ানদের ভ্রমণে ঝুঁকি এখনো সর্বোচ্চ পর্যায়েই আছে। গত বছর যখন আমরা টেস্ট টিমের সফর করি পরিস্থিতি এখনো সেই পর্যায়েই রয়েছে। অস্ট্রেলিয়ান স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সর্বোচ্চ হুমকি এখনো বাংলাদেশে বিরাজ করছে। অস্ট্রেলিয়া সরকারের আরেকটি প্রতিনিধি দলের সফরের পর তারা বিষয়টি সরকারকে জানিয়েছে। সব তথ্য ও পরামর্শ আমরা পেয়েছি। সবশেষ আমাদের মনে হয়েছে এমন কঠিন সিদ্ধান্ত গ্রহণ ছাড়া আমাদের সামনে কোনো পথ নেই।’

তবে এমন সিদ্ধান্তে টুর্নামেন্টের আয়োজক হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কাছে ক্ষমা চেয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। যুব বিশ্বকাপে চার গ্রুপে বিভক্ত হয়ে ১৬টি দল অংশ নেবে। এর মধ্যে অস্ট্রেলিয়া আছে ‘বি’ গ্রুপে। যেখানে তাদের সঙ্গে রয়েছে ভারত, নেপাল ও নিউজিল্যান্ড।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই