মেইন ম্যেনু

যেভাবে সন্দেহ দানা বাঁধছে আপনার সম্পর্কে

সম্পর্কে বিশ্বাস খুবই জরুরি। বলা হয়, ভালবাসার সম্পর্ক টিকে থাকে বিশ্বাস আর আস্থার উপর। কখনো এই বিশ্বাসে চিড় ধরলে যেন বেজে যায় প্রলয় ঘন্টা। সামান্য একটু ভুল বোঝাবুঝি বপন করতে পারে সন্দেহের বীজ, ধ্বংস করে দিতে পারে আপনার এতদিনের বন্ধন। তাই খেয়াল রাখুন এই ভুলগুলো করছেন না তো?

ফ্লার্ট করা
অফিসের কলিগ, ফেসবুকের অপরিচিত বা স্বল্প পরিচিত বন্ধুসহ এমন অনেকের সাথে ফ্লার্ট করা হয়ত খুবই সাধারণ হাস্যরসের আওতায় পড়ে। কিন্তু আপনার এই হাস্যরসের ফল হতে পারে ভয়াবহ। কারণ ফ্লার্ট করা মানে হল তার সাথে আপনার সম্পর্ক আর ১০ জনের চেয়ে কিছুটা হলেও ঘনিষ্ঠ, ইনফরমাল। নিজে তো ফ্লার্ট করবেনই না, অন্য কেউ করলে তাকেও গুরুত্ব দেবেন না, বরং নিরুৎসাহিত করুন।

গোপনে গোপন কথা বলা
আপনার দাম্পত্যের গোপন কথা আপনি যদি গোপনে কারও সাথে শেয়ার করেন তাহলে আপনি সম্পর্কের শর্ত ভেঙ্গেছেন। আপনি শুধু নিজের নয়, আপনার সঙ্গীর গোপনীয়তাও নষ্ট করেছেন। ৩য় এই ব্যক্তি যদি বিপরীত লিঙ্গের কেউ হয় তাহলে কিন্তু সেটি আরও রহস্যজনক হয়ে গেল। এধরণের সন্দেহউদ্রেককারী সম্পর্ক এড়িয়ে চলুন।

কারও সাথে একা সময় কাটানো
বিশেষ কাউকে আপনি আলাদা সময় দিতে শুরু করেছেন, দীর্ঘসময় ফোনে কথা বলছেন, দেখা করছেন। আপনার এই সম্পর্ক যদি আপনার সঙ্গীর কাছে পরিষ্কার না হয় তাহলে আপনার দাম্পত্যের সম্পর্কের মারাত্মক ক্ষতি করতে পারে। এমন কোন নতুন বন্ধুত্ব তৈরি করবেন না যা আপনাকে গোপন করতে হয়।

সমালোচনা করা/ তুলনা করা
আপনি আগে আপনার সঙ্গীর খুব প্রশংসা করতেন। কিন্তু হঠাৎ বেশ কিছুদিন যাবত আপনি শুধুই সমালোচনা করে চলেছেন। এমনকি অন্যের সাথে তুলনা করে যাচ্ছেন। এটি সহজেই সন্দেহের উদ্রেক করে। তার মানে আপনি এখন আর তাকে নিয়ে সন্তুষ্ট নন। আপনার জীবনে নতুন কেউ এসেছে, এই দুশ্চিন্তা তার মনে আসতেই পারে।

যৌন সম্পর্কে অনাগ্রহ
আপনি আর আগের মত আপনার সঙ্গীর সাথে ঘনিষ্ঠ হতে চান না। এটি অনেক বড় একটি ব্যাপার। শারীরিক সম্পর্কের নিয়মিত চর্চা দাম্পত্যের স্বাভাবিক চাহিদা। এর উপর নির্ভর করে পারস্পারিক আকর্ষণ। আপনি যদি এখন আর আগ্রহী না হন তাহলে এটি আপনার সম্পর্কের মধুরতা কেড়ে নেবে। ধীরে ধীরে দানা বাঁধবে অবিশ্বাস।

সম্পর্কের যত্ন নিন। অপ্রয়োজনীয় ঘনিষ্টতা এড়িয়ে চলুন। পৃথিবীতে ভালোবাসার চেয়ে মূল্যবান আর কিছু নেই।






মন্তব্য চালু নেই