মেইন ম্যেনু

যে আমলের বিনিময়ে জান্নাতের ওয়াদা

দুনিয়া আখিরাতের শষ্যক্ষেত্র। আল্লাহ তাআলা মানুষকে দুনিয়াতে পাঠিয়েছেন তাঁর দ্বীন প্রতিষ্ঠার জন্য। মানুষ আল্লাহর দ্বীন প্রতিষ্ঠা করবে, আর আল্লাহ তাআলা মানুষকে পরকালীন জীবনে সফলতা দান করবেন। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাঁর উম্মতদের লক্ষ্য করে বলেছেন, ‘আমাকে ৬টি আমলের ওয়াদা দাও; আমি তোমাদেরকে জান্নাতের ওয়াদা দেব।’ঘোষিত আমলসমূহ তুলে ধরা হলো-

বিশ্বনবি ঘোষিত ৬ আমল
১. সব সময় সত্য কথা বলা;
২. প্রতিশ্রুতি (ওয়াদা) পূর্ণ করা;
৩. আমানতের খিয়ানাত না করা;
৪. ইজ্জতের (লজ্জাস্থানের) হিফাজত করা;
৫. দৃষ্টি অবনমিত রাখা;
৬. জুলুম থেকে বিরত থাকা;

ফায়েদা
সত্য বলা, প্রতিশ্রুতি পালন এবং আমানত; প্রথম তিনটি শর্তই আল্লাহ এবং বান্দার সঙ্গে সম্পর্কিত। বাকি তিনটি বান্দার প্রতি আল্লাহ তাআলা নির্দেশ।

আল্লাহ ও বান্দার সত্য বলার মর্মার্থ
আল্লাহ তাআলার একত্ববাদে স্বীকার করা; একনিষ্ঠ অন্তরে তাওহিদের কালিমা পড়া। মুখে কালিমা পড়ে অন্তরে তা অস্বীকার বা বিপরীতমুখী কাজ হলো সবচেয়ে বড় মিথ্যাচার ও মুনাফেকি। আর বান্দার বিষয়টি হলো সদা সর্বদা বাস্তব পরিপন্থী কথা থেকে বিরত থাকা অর্থাৎ মিথ্যা ত্যাগ করা।

আল্লাহ ও বান্দার প্রতিশ্রুতি পালনের মর্মার্থ
রুহের জগতে মানুষ আল্লাহ তাআলাকে প্রতিপালক হিসেবে স্বীকার করে তাঁর অনুগত থাকার প্রতিশ্রুতি প্রদান করেছিল। এ প্রতিশ্রুতি পালন করা জরুরিই নয় বরং আবশ্যক। আর বান্দার প্রতিশ্রুতি পালনের উদ্দেশ্য হলো যদি একজন অপরজনের কাছে কোনো কিছু প্রতিশ্রুতি দেয় তবে তা পূরণ করা জরুরি।

আল্লাহ ও বান্দার আমানত রক্ষার মর্মার্থ
আল্লাহ তাআলা মানুষকে ঈমান গ্রহণ এবং তাঁর বিধি-বিধান পালনের জন্য নির্দেশ প্রদান করেছেন। এ সব কিছু আল্লাহর পক্ষ থেকে বান্দার জন্য আমানত। আর বান্দার ক্ষেত্রে আমানতের অর্থ হলো কোনো লোক যদি হিফাজতের উদ্দেশ্যে কোনো জিনিস অন্য কারো নিকট জমা বা আমানত রাখে অথবা কোনো গোপনীয় কথা বলে; তবে উভয় প্রকার আমানতের হিফাজত করা বান্দার জন্য জরুরি।

বাকি তিনটি বিষয়-
লজ্জাস্থানের হিফাজত, দৃষ্টি নিচু রাখা এবং অত্যাচার থেকে বিরত থাকা। এ গুলো মেনে চলা আল্লাহ তাআলা নির্দেশ। যা পালন করা আবশ্যক করণীয়। সুতরাং যারা এ ৬টি ওয়াদা কুরআন-সুন্নাহ মোতাবেক মেনে চলতে পারবে; রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাদের ব্যাপারে নিশ্চিত জান্নাতের ওয়াদা করেছেন।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে উল্লেখিত ৬টি ওয়াদা যথাযথভাবে পালন করার সামর্থ্য দান করুন। বিশ্বনবির ঘোষিত ওয়াদা বাস্তবয়ন করে জান্নাত লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।






মন্তব্য চালু নেই