মেইন ম্যেনু

যে কারণে ক্রিকেট থেকে চলচ্চিত্রের জগতে পা দিলেন আমির

২০১০ সালে লর্ডস টেস্টে স্পট ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন পাকিস্তানের প্রতিভাবান খেলোয়াড় মোহাম্মদ আমির। সেই থেকে জীবনধারণ কঠিন হয়ে দাঁড়য় তার। জীবিকার তাগিদে মাঠের তারকা এখন রূপালী পর্দার তারকা!

তবে কোনো অতিথির চরিত্র নয়। পাক্কা এক হিরোর চবিত্রে দেখা যাবে আমিরকে। আমিরকে নায়ক হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন পাকিস্তানের এক পরিচালক। সেই প্রস্তাবে রাজি হয়ে রুপালি পর্দায় নাম লেখাচ্ছেন এই ২২ বছর বয়সী। ফয়সাল বুখারি পরিচালিত ছবির নাম অন্ধ ভালোবাসা (ব্লাইন্ড লাভ)।

বার্তা সংস্থা এএফপিকে আমির বলেছেন, ‘পাকিস্তানের একটি ছবিতে আমাকে হিরোর প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। আমি এই সুযোগটা নিতে চাই। অবশ্য নিষেধাজ্ঞা শেষ হলে আমি আবার ক্রিকেটেই ফিরব। ক্রিকেটই হবে আমার প্রথম পছন্দ।’

২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে নিষেধাজ্ঞা শেষ হবে আমিরের। ২০১০ সালে লর্ডস টেস্টে স্পট ফিক্সিং কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন মাত্র ১৯ বছর বয়সেই নিজের প্রতিভা দিয়ে আলোচনায় আসা এই পেসার। নিষেধাজ্ঞার কারণে কোনো ধরনের ক্রিকেটে যুক্ত থাকতে পারছেন না আমির।

জীবন চালাতে খুব কষ্ট হয়ে যাচ্ছে তাই বিকল্প সুযোগ সন্ধান করতে হয়েছে বলে জানালেন, ‘চার বছর ধরে আমি ক্রিকেট খেলছি না, যেটা আমার একমাত্র রুটি-রুজি ছিল। তাই আমাকে উপার্জনের কোনো না কোনো পথ বের করতেই হতো। এই প্রস্তাবটা আমার জন্য তাই আশীর্বাদ হয়ে এসেছে।’



(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই