মেইন ম্যেনু

যে কারণে ডায়েট করা বন্ধ করবেন আজই!

ডায়েট সম্পর্কে একটি প্রচলিত ভুল ধারণা হল, ডায়েট করা মানেই স্বাস্থ্য কমানো বা ওজন কমানো, প্রকারান্তরে তন্বী দেহের অধিকারী হওয়া। কিন্তু আপনি মোটা হন বা চিকন সুস্বাস্থ্যের জন্য আপনার কিন্তু নিয়ম মেনে খাবার গ্রহণ মানে ডায়েট করা জরুরী। তবে হ্যাঁ, ডায়েট করাও কিন্তু কখনো কখনো বন্ধ করা উচিৎ। আসুন জেনে নিই কারণগুলো-

যখন আপনার সারাক্ষণ ক্ষিধে পায়
আপনার যদি সারাক্ষণ ক্ষিধে পায়, বুঝতে হবে আপনি পর্যাপ্ত খাবার খাচ্ছেন না। আপনার শরীর আরও খাবার চায়, তার আরও শক্তি প্রয়োজন। এর মানে আপনার ডায়েট চার্টটিতে কোন সমস্যা আছে। অবাক হচ্ছেন? আপনি হয়ত আপনার শারীরিক দূর্বলতা বা ক্ষুধা পাওয়াকে ডায়েটের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ধরে নিয়েছেন। কিন্তু ডাক্তাররা মনে করেন, এসব বিষয়ে হেলাফেলা করা ঠিক নয়। কারন আপনার শরীর এভাবেই আপনাকে বলতে চায় তার কী প্রয়োজন। তাই একে গুরুত্ব দিন।

যখন আপনি ভাবেন, ওজন কমলেই সব সুখ
আসলে সুখ কি, ভাল থাকা কি? এর সন্ধান একেক ব্যক্তি একেক ভাবে পায়। আপনি হয়ত ভাবছেন, শুকিয়ে গেলেই জীবনে সব সুখ পাওয়া যাবে। আপনার মনে একটি ছবি আঁকা আছে। ঠিক সেই ছবির মত একটি শারীরিক গঠন চাই আপনার। কিন্তু এই চিন্তা আপনার ডায়েটকে প্রভাবিত করতে পারে। ওজন কমার বদলে বেড়ে যেতে পারেকিছু মাত্রায়। সেক্ষেত্রে বন্ধ করুন এই নিয়ম মানা।

এই শেষ খাওয়া
আপনার একটি ডায়েট চার্ট আছে। কিন্তু খাবার দেখলে আপনি লোভ সংবরণ করতে পারেন না। প্রতিবারই আপনার মনে হয়, এই শেষ। শেষবারের মত খেয়ে ফেলেন এক প্লেট বিরিয়ানী। অথবা বিশাল একটা বার্গার বা পিজ্জা। এমন ঘটে প্রায়ই। বন্ধুর জন্মদিন এলে, পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হলে বা হঠাৎ মন খারাপ হলে আমরা বেশি খেয়ে ফেলি। বুঝি না এতে কেমন ক্ষতি হছে আমাদের শরীরের।

খাবারের ব্যাপারে আপনার অনেক নিয়ম
আপনি হয়ত সারাক্ষণই ভাবছেন, আপনি অনেক খেয়ে ফেলছেন। তেল ছেড়েছেন, চিনি ছেড়েছেন, খাবারে কাঁচা লবণ খাচ্ছেন না। সবই স্বাস্থ্যকর সীদ্ধান্ত। কিন্তু মনে রাখবেন, শরীরের কার্বোহাইড্রেট এরও প্রয়োজন আছে, একই সাথে ফ্যাটও একটি প্রয়োজনীয় খাদ্য উপাদান। শুধু পুষ্টিকর খাবার খাওয়ার চিন্তায় পুষ্টির ঘাটতি করে ফেলছেন এমন যেন না হয়। সেক্ষত্রে আজই অনুসরণ করা বন্ধ করুন আপনার ডায়েট চার্টটি।

পিরিয়ড বন্ধ হয়ে যাওয়া
পর্যাপ্ত খাবারের অভাবে শরীরের মেটাবলিজম ধীর হয়ে যায়, কারণ আপনি কম ক্যালরি গ্রহণ করছেন। এতে প্রজনন সম্পর্কিত হরমোন গুলো ঠিক মত নিঃসৃত হয় না। ফলে পিরিয়ড বন্ধ হয়ে যেতে পারে বা কম সময়ের জন্য হতে পারে। এটি অবশ্যই চিন্তার বিষয়। আপনি যে ডায়েট চার্ট অনুসরন করেছেন, তা একটি সমৃদ্ধ খাদ্য তালিকা নয়। আজই বন্ধ করুন এই তালিকা অনুযায়ী খাওয়া।

ক্ষুধা মন্দা
যখন দীর্ঘদিন যাবত আপনি খাওয়া কমিয়ে চলেছেন, ক্ষুধা লাগলেও খেতে যাচ্ছেন না, এমনকি নির্দিষ্ট সময়ের বাইরে হালকা কিছুও মুখে তোলেন না, তখন মস্তিষ্ক আপনাকে সিগন্যাল পাঠানো বন্ধ করে দেয়। ফলে, ক্যালরির অভাব তীব্র হলেও আপনি হয়ত তা টের পাবেন না। এটি হৃদরোগসহ আরো জটিল নানান স্বাস্থ্যঝুকির জন্ম দিতে পারে। দ্রুত বন্ধ করুণ এমন ডায়েট।






মন্তব্য চালু নেই