মেইন ম্যেনু

যে কারণে দিনে আড়াই কেজি মরিচ খান লি ইয়ংঝাই

এই পৃথিবীতে প্রায় ৭’শ কোটি মানুষের বসবাস। কিন্তু তাদের জাতীয়তা, ভাষা এমনকি খাওয়া দাওয়াও আলাদা। তবে এমন অদ্ভূত লোকও আছে যার খাবারের তালিকায় স্থান পায় শুধুই মরিচ।

দিন-রাত, সকাল-দুপুর সব সময় কখনো গুঁড়া, কখনো কাঁচা, কখনো আবার সিদ্ধ মরিচ স্থান পায় তার খাবারের তালিকায়। শুধু কি তাই, সারাদিনে তিনি আড়াই কেজি মরিচ খেয়ে দিব্যি সুস্থ্য থাকছেন। আর এই মরিচ খাওয়ার কারণে তিনি সবার কাছে পরিচিতি পেয়েছেন `চিলি কিং` নামে।

এমন অদ্ভূত খাদ্যাভ্যাসের কারণে রীতিমতো বিখ্যাত তিনি। সবার কাছে তিনি ‘চিলি কিং’ বা ‘লঙ্কা রাজা’ নামে সুপরিচিত। `চিলি কিং` নামে পরিচিতি পাওয়া ওই ব্যক্তির আসল নাম লি ইয়ংঝাই। বাড়ি চীনের হিনান প্রদেশে। প্রতিদিন আড়াই কেজি মরিচ না খেলে নাকি ঘুম আসে না তার। নিজের বাড়ির উঠানে শখ করে লাগিয়েছেন ৮টি ভিন্ন প্রজাতির মরিচের গাছ।

সেই ছোটবেলা থেকেই তার এই অভ্যাস গড়ে তোলেছেন বলে জানিয়েছেন লি ইয়ংঝাই। লি ইয়ংঝাই এরকথায়, ছোটবেলায় গোড়ে তোলা এই অভ্যাস আজও আমি ছাড়তে পারিনি। এই মরিচ খাওয়ার পরিমান যেন আমার দিনে দিনে বেড়েই চলেছে।

মাছ, ডিম, কিংবা মাংস খাওয়া ছাড়া চলতে পারি লি কিন্তু মরিচ ছাড়া একদিনও চলা সম্ভব নয়। এজন্য দিনে আড়াই কেজি মরিচ আমার খাবারের তালিকায় থাকে।

সকালে ঘুম থেকে উঠে মানুষ যখন দাঁত ব্রাশ করতে ব্যস্ত সেই সময় তিনি বসেন যান মরিচের প্লেট নিয়ে। অদ্ভুত বিষয়টি হলো, গত ৮ বছরে লঙ্কা রাজার কোনো ছোট-বড় রোগ হয়নি। খেতে খেতেই তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।

জানালেন, লঙ্কা ছাড়া আর তার অন্যকোনো খাবার মোটেও মুখে রোচে না। গত ৬ মাস দারুণ ঝাল রয়েছে এমন কোনো মরিচ খেতে না পারায় মনটা খারাপ। ‘চিলি কিং’য়ের ছেলের অবশ্য বাবার মতো হননি। তিনি অবাক, বাবা এত ঝাল খায় কি করে বুঝি না।






মন্তব্য চালু নেই