মেইন ম্যেনু

যে কারণে নিজের কবর নিজেই খুঁড়লেন আ’লীগের এই বিদ্রোহী প্রার্থী

বরিশালের মুলাদী উপজেলার কাজিরচর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার বিজয় ঠেকাতে কাফনের কাপড় পরে নিজের কবর নিজেই খুঁড়লেন বিদ্রোহী প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইউসুফ আলী। শুক্রবার সকালে দু-তিনজন সমর্থক নিয়ে উপজেলার কাজিরচর ইউনিয়নের দক্ষিণ কাজিরচরের রেইন্ট্রিতলা এলাকায় নিজের বাড়ির সামনে তিনি এ কবর খুঁড়েছেন। নির্বাচনে পরাজিত হলে আত্মাহুতি দেবেন বলেও ঘোষণা দিয়েছেন বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতির পদ থেকে সদ্য বহিষ্কৃত এ নেতা।

স্থানীয়রা জানান, কবর খুঁড়ার পরে তিনি কাফনের কাপড় পরে এলাকায় বেরিয়েছেন এবং আত্মহত্যার ভয় দেখিয়ে ভোটারদের কাছ থেকে ভোট আদায় করতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা জানান, পরাজয় নিশ্চিত ভেবেই জনবিচ্ছিন্ন ও দল থেকে বহিষ্কৃত ইউসুফ ইঞ্জিনিয়ার ভোটারদের কাছে টানতে এই অপকৌশল অবলম্বন করেছেন। সংবাদ পেয়ে মুলাদী থানার এসআই ফারুক হাওলাদার, এসআই নাসির উদ্দীন, এএসআই মোশাররফ হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এ ব্যাপারে বিদ্রোহী প্রার্থী ইউসুফ ইঞ্জিনিয়ার জানান, কাজিরচর ইউনিয়নে নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবিতেই তিনি কবর খুঁড়েছেন।

আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. মন্টু বিশ্বাস জানান, কাজিরচর ইউপি নির্বাচনকে বাধাগ্রস্ত করতেই বিদ্রোহী প্রার্থী ইউসুফ ইঞ্জিনিয়ার অপকৌশল অবলম্বন করেছেন। বিদ্রোহী প্রার্থী কাফনের কাপড় পরে কবরের পাশে অবস্থান করতে থাকায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবদুল্লাহ আল মাসউদ এবং মুলাদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মতিউর রহমান ঘটনাস্থল থেকে এক সহযোগীসহ ইউসুফ ইঞ্জিনিয়ারকে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে নিয়ে আসেন।

ইউসুফ ইঞ্জিনিয়ার ২০১২ সালে মুলাদী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির পদ বঞ্চিত হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মো. ইউনুসসহ সিনিয়র নেতাদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই