মেইন ম্যেনু

যে কারণে ফেসবুকে নিষিদ্ধ কবির সুমন

গানে গানে প্রতিবাদের সুর ছড়ানো শিল্পীর নাম কবির সুমন। ভারতের বিখ্যাত এই সংগীতশিল্পীকে ফেসবুকে হঠাৎ নিষিদ্ধ করা হয়। কিন্তু কেন?

কবির সুমন দিল্লির জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের (জেএনইউ) বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীদের পক্ষে গান লিখেছেন। সেই গান ফেসবুকে পোস্ট করেছেন। কবির সুমনের ভক্ত-শুভাকাক্সক্ষীদের দাবি, জেএনইউর শিক্ষার্থীদের পক্ষে গান লেখায় তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

কবির সুমন সবসময়ই অন্যায়ের বিরুদ্ধে, মানবতার পক্ষে কথা বলেন। গানে গানে প্রতিবাদ জারি রাখেন। এ জন্য তাকে অনেক অত্যাচার-নির্যাতন সহ্য করতে হয়েছে। কিন্তু কোনো কিছুতেই থামেননি তিনি। ক্ষমতার জোরে অনেকেই তাকে মৃত্যু ভয় দেখিয়েছেন। কিন্তু তিনি মানুষের পক্ষে, ন্যায্য অধিকারের পক্ষে অবিচল, অটল থেকেছেন সবসময়।

এদিকে কবির সুমনের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ থাকায় বিভিন্ন মহলে সমালোচনার ঝড় ওঠে। ফেসবুক ও সরকারের ওপর চাপ বাড়তে থাকে। যে কারণে ২৪ ঘণ্টা বন্ধ রাখার পর তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে দেওয়া হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কবির সুমনের পক্ষে সমর্থনের জোয়ার উঠেছে।

ভারতের অধিকাংশ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জেএনইউর আন্দোলনকে সমর্থন করছে। ছাত্রনেতা কানাইয়ার মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে। কবির সুমন শিক্ষার্থীদের সমর্থন করে গান লিখেছেন।

যে গানের কারণে ফেসবুকে নিষিদ্ধ কবির সুমন

যেখানেই থাকো তুমি শ্রীনগরে দেখা হবে ইতিহাস তুমি বলো স্বাধীনতা দেবে কবে।
ঝিলমের স্রোতে ভাসে রাতের কবিতা একা আঁধারের কবি জানে শ্রীনগরে হবে দেখা।
ইন্স্যাস থেকে গুলি আকাশে বুলেট ক্ষত তারারা গুলির দাগ প্রদীপ জ্বলবে যত।
কার ঘরে নিভে গেছে প্রদীপের শিখা কবে আফজল গুরু শোনো শ্রীনগরে দেখা হবে।
ফাঁসিতে বুলেটে বুটে ইতিহাস ফ্যালে পিষে সেই ইতিহাসই বাঁচে একা দোয়েলের শিসে।
কাশ্মীরে স্বাধীনতা ডাকছে দোয়েল একা গানের কসম জান শ্রীনগরে হবে দেখা।।

তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইন।






মন্তব্য চালু নেই