মেইন ম্যেনু

যে বিপদ হতে পারে অতিরিক্ত ঘুমে!

বেশি ঘুম মূলত শারীরিক দুর্বলতারই কারণ। অনেক সময় মনে হয় ঘুম মানে তো বিশ্রাম অতএব বেশি ঘুমলে শরীরের পক্ষে ভাল। কিন্তু এটা ভাবা একদমই উচিত নয়। বেশ কিছু বিপদ নিয়ে আসে মাত্রাতিরিক্ত ঘুমে।

একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের রাতে ৬-৮ ঘণ্টা ঘুমই যথেষ্ট। কিন্তু এর বেশি ঘুম বিভিন্ন ধরণের শারীরিক সমস্যার সৃষ্টি করে। এমন কি এটা মৃত্যুরও কারণ হতে পারে।

বিষন্নতার ঝুঁকি বাড়ায়: সম্প্রতি এক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে দীর্ঘ সময় ঘুমালে বিষণ্নতার ঝুঁকি বাড়ে। ৭-৯ ঘণ্টা ঘুমলে যেখানে ২৭ শতাংশ বিষণ্নতার লক্ষণ দেখা গেছে সেখানে ৯ ঘণ্টা বা তার বেশি ঘুমিয়ে থাকলে ৪৯ শতাংশ বিষণ্নতার লক্ষণ পাওয়া গিয়েছে।

সন্তানধারণে সমস্যা: প্রাপ্তবয়স্ক নারীদের উপর কোরিয়ায় একটি গবেষণাগারে সমীক্ষা চালিয়ে দেখা যায় যারা ৭-৮ ঘণ্টা ঘুমান তাদের সন্তান ধারণের সক্ষমতা তুলনায় যারা ৯-১১ ঘণ্টা ঘুমান, তাদের থেকে অনেক বেশি থাকে৷

ডায়াবেটিস জনিত সমস্যা বৃদ্ধি পায়: বেশি ঘুমানোর সঙ্গে ডায়াবেটিসের ঝুঁকির আশঙ্কা রয়েছে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, যারা ৮ ঘণ্টার বেশি ঘুমান ৬ বছরের মধ্যে তাদের টাইপ ২ ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ে। অন্যদিকে যারা ৭-৮ ঘণ্টার মতো ঘুমান তাদের শরীরে এই ঝুঁকি কম থাকে।

ওজন বাড়িয়ে দেয়: একই গবেষণায় দেখা গিয়েছে বেশি ঘুমানোর কারণে ৬ বছরের মধ্যে ওজন বেড়ে যেতে পারে। যারা ৯-১০ ঘণ্টা ঘুমান তাদের ২৫ ভাগের ওজন বেড়েছে। এমনকি খাবার গ্রহণে সতর্কতা ও শারীরিক কসরত সত্ত্বেও স্থূলতা আটকানো যায়নি।






মন্তব্য চালু নেই