মেইন ম্যেনু

যে ভিটামিনগুলো একসাথে সেবন করবেন না কখনোই

ভিটামিন- আমাদের শরীরকে সুস্থ আর সুন্দর রাখার জন্যে অন্যতম দরকারী একটি উপাদান। যদিও এর প্রায়গুলোই আমাদের শরীরে উত্পন্ন হয়ে থাকে, কিছু কিছু সময় সেখানে ঘাটতি তৈরি হয়। এছাড়াও কিছু ভিটামিন রয়েছে যেগুলো আমাদের শরীর ঠিক উত্পন্ন করতে পারেনা। আর তাই প্রায়ই নানারকম দরকারে ভিটামিন ট্যাবলেট কিনে খাওয়ার প্রয়োজন পড়ে মানুষের। ভিটামিন খাওয়া ভালো। কিন্তু কখনো ভেবেছেন কি যে একই সাথে দুটো ভিটামিন খেলে কী অবস্থা হবে? বিশেষ করে নীচের এই ভিটামিনগুলো? কেবল অসুস্থতা নয়, প্রাণ কেড়ে নেওয়ার মতন পরিস্থিকিও তৈরি করতে পারে আপনার ক্ষেত্রে দুটো ভুল ভিটামিন একসাথে নিলে। আসুন জেনে আসি ভিটামিনগুলোকে।

১. ক্যালসিয়াম ও ম্যাগনেশিয়াম একদম না!

সাধারণত মানুষ ক্যালশিয়ামের ভিটামিন বেশি গ্রহন করে থাকে। হাড় ও দাঁত শক্ত হওয়ার জন্যেই এমনটা করে থাকেন তারা। চিকিত্সকদের পরামর্শের এই ভিটামিনটি প্রায় সময়েই জায়গা করে নেয়। তবে ক্যালসিয়াম এমনিতে ভালো হলেও একটি খনিজ হিসেবে এর সাথে অন্য আরেকটি ভিটামিন গ্রহন করলে ক্যালসিয়াম অপর ভিটামিনটির কার্যক্ষমতাকে নষ্ট করে তদেয় অনেকটা পরিমাণে। ঠিক একই রকমটা হয় ম্যাগনেশিয়ামের ক্ষেত্রেও। আর তাই অন্য ভিটামিনের সাথে তো নয়ই, ক্যালসিয়াম আর ম্যাগনেশিয়ামও এখসাথে কখনো না গ্রহন করাটাই উচিত। বরং, একটি সকালে সেবন করলে অন্যটি রাতে গ্রহণ করাই ভালো।

২. নিয়াসিন ও ভিটামিন এ পরিহার করাই ভালো!

সাধারণত পুষ্টির জন্যে নিয়াসিন ভিটামিন গ্রহন করে মানুষ। অপুষ্টিজনিত সমস্যার হাত থেকে রক্ষা পেতে এটি সেবনের পরামর্শ দেন চিকিত্সকেরা। তবে এর সাথে যদি ভিটামিন এ বা সি ও ই ভিটামিন গ্রহণ করা হয় তাহলে নিয়াসিনের ক্ষমতা অনেকটাই নষ্ট হয়ে যায়।

৩. ভিটামিন এ এবং ভিটামিন কে খাওয়া যাবেনা একসাথে!

রক্তের সমস্যা দূর করার জন্যে চিকিত্সকেরা রোগীদেরকে ভিটামিন কে সেবনের পরামর্শ দেন। তবে এটি নেওয়ার সময় ভুলেও ভিটামিন এ এবং ভিটামিন ই সেবন করবেননা। এতে করে রক্ত আরো পাতলা হয়ে যাওয়ার ঝুঁকি থাকে। ভিটামিন কে এর প্রতিক্রিয়ার একেবারে বিপরীতটাও হতে পারে এ দুটো ভিটামিন একসাথে সেবন করলে।

ভিটামিনের সঠিক সেবন যেমন পারে আপনাকে সুস্থ রাখতে, ভুল সেবনে তেমনই হয়ে যেতে পারে মারাত্মক ক্ষতিও!






মন্তব্য চালু নেই