মেইন ম্যেনু

যে হত্যা পাকিস্তানিদেরও ছুঁয়ে গেল

পাকিস্তানে দিনে দুপুরে হত্যা খুন রাহাজানি নিত্তনৈমিত্তিক ঘটনা। প্রতিদিনই কোথাও না কোথাও অজস্র খুনের ঘটনা ঘটছে। সাধারণ মানুষও এসব ঘটনাকে খুব স্বাভাবিকভাবেই নিতে অভ্যস্ত। অথচ ২২ জুন বিকালে আততায়ীর গুলিতে উপমহাদেশের প্রখ্যাত কাওয়ালি আমজাদ সাবরির মৃত্যু ছুঁয়ে গেল পাকিস্তানি সাধারণ মানুষদেরকেও! চোখের জল ফেলছেন অনেকেই!

পাকিস্তানে সূফি শিল্পী ও কাওয়ালি মায়েস্ত্রো হিসেবে পরিচিত উপমহাদেশের বিখ্যাত শিল্পী আমজাদ সাবরি। ২২ জুন বিকালে নিজের গাড়ি করে একটি টিভি অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলেন তিনি। শুরু থেকেই নাকি তার গাড়িকে লক্ষ্য করছিলেন একটি মোটর বাইক। কিন্তু সেদিকে গুরত্ব দেননি। এরপর ব্যস্ততম এলাকা লিয়াকতাবাদ পর্যন্ত যেতেই সেই মোটর বাইকে থাকা দুই আরোহি আমজাদ সাবরির গাড়িকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ে। বুকে মাথায় একাধিক গুলিবিদ্ধ হয়েই মারা যান সাবরি।

তার এমন মৃত্যুর খবর ইফতারির আগেই ছড়িয়ে যায় চারদিকে। বিশ্ব মিডিয়ায়ও তৎক্ষণাৎ তুমুল জনপ্রিয় এই শিল্পীকে হত্যার খবরটি বেশ গুরুত্বসহকারে প্রকাশ করে। সাধারণ হত্যার কোনো খবরে পাকিস্তানি সাধারণ নাগরিকদের ছুঁয়ে না গেলেও দেশ সেরা ৪৫ বছর বয়সী কাওয়ালি শিল্পী আমজাদ সাবরির মৃত্যু ছুঁয়ে যায় তাদের। তাকে দেখতে রাস্তায় মানুষর ঢল নামে।

অন্যদিকে তাকে হত্যার বিষয়ে পাকিস্তানের বিভিন্ন মিডিয়ায় খবর প্রকাশ হয় যে, আগেও এই শিল্পীকে হত্যার হুমকি দেয় আততায়ীরা। কিন্তু কেন এরপর তিনি নিরাপত্তা চাইলেন না? এমন প্রশ্ন যখন উঠছে তখন সে বিষয়ে মুখ খুললেন আমজাদ সাবরির ভাই সারওয়াত সাবরি।

ভাইকে হত্যার খবর শুনে বৃহস্পতিবার সকালের ফ্লাইটে লন্ডন থেকে সোজা করাচিতে এসে পৌঁছেছেন তিনি। আর করাচি নেমেই গণমাধ্যমের প্রশ্নের সম্মুখিন সারওয়াত সাবরি। সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানালেন, আমার ভাইকে আগে কখনোই মৃত্যুর হুমকি দেয়া হয়নি। যে খবর এখন প্রচার হচ্ছে তা ভুল।

এখন পর্যন্ত কাওয়ালি শিল্পী আমজাদ সাবরিকে হত্যার দায় স্বীকার করেনি কেউ। পাকিস্তান পুলিশও কোনো ক্লু বের করতে পারেনি। অহরহ মরছে সাধারণ মানুষ, আর এবার হাইপ্রোফাইলের একজন শিল্পীর হত্যার মধ্য দিয়ে পাকিস্তান আবারও বিশ্বে অনিরাপদ দেশ হিসেবে পরিণত হল। যদিও এরইমধ্যে মুখ্যমন্ত্রী সাইয়েদ কাইম আলী শাহ এই ইস্যুতে একজন ‘ডিএসপি’কে বরখাস্ত করেছেন। কিন্তু তাতে কি আর ফল হয়?

এছাড়া বুধবার ইফতারের আগে ব্যস্ততম রাস্তায় গুলি করে শিল্পী আমজাদ সাবরিকে হত্যার পর শোকাহত গোটা পাকিস্তানের শিল্পাঙ্গন। আমজাদ সাবরির মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফও। তিনি সাবরির সংঘটন ও পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। এছাড়া তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন বন্ধুবান্ধব, শিল্পী, শোবিজ অঙ্গনের মানুষেরা।






মন্তব্য চালু নেই