মেইন ম্যেনু

যে ৫টি কারণে ছেলেদেরকে ঠকায় মেয়েরা

প্রেম হোক কিংবা বিয়ে। বৈধ হোক কিংবা অবৈধ। সেই কবে থেকে সম্পর্কে ধোঁকা দেওয়ার রীতি চলে আসছে। স্বামী স্ত্রীকে ঠকাচ্ছে। স্ত্রী স্বামীকে ঠকাচ্ছে। প্রেমিক প্রেমিকাকে ঠকাচ্ছে। আবার প্রেমিকা প্রেমিককে ঠকাচ্ছে। ঠকানোর এই ট্রেন্ড যুগের পর যুগ ধরে চলে আসছে। ছেলেরা তো অনেক কারণেই মেয়েদের ঠকায়। ছেলেদের ঠকানোর হার বেশি দেখা যায়। কিন্তু কিছু কিছু ক্ষেত্রে দেখা যায় মেয়েরাও ছেলেদের ঠকাচ্ছে। মেয়েরা কেন বা কখন ছেলেদের ঠকায় জানেন?

১) নতুন সঙ্গীর খোঁজে- কোনও কোনও মেয়ের ক্ষেত্রে দেখা যায় তারা একজন সঙ্গীতে সুখী হতে পারেন না। তারা একজনের সঙ্গে বেশিদিন থাকতে পারেন না। কিছুদিন যেতে না যেতেই সঙ্গীকে একঘেয়ে মনে হতে থাকে। তখনই তারা সঙ্গীকে ঠকিয়ে অন্য সঙ্গী খোঁজে।

২) সঙ্গীর তার আবেগ না বুঝলে- কোনও সম্পর্কে আবেগ থাকা খুবই জরুরি। কখনও কখনও দেখা যায় একজন আরেকজনের আবেগকে মর্যাদা দিতে চায় না। আবেগকে বুঝতেই চায় না। তখনই বিরোধ দেখা দেয়। আর তখনই মেয়েরা পুরনো সঙ্গীকে ঠকিয়ে নতুন এমন একজনের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করতে চায়, যে তাঁর আবেগকে বুঝবে, তাঁকে সম্মান দেবে।

৩) প্রতিশোধ নিতে- কোনও কোনও মেয়ের মধ্যে প্রচণ্ড পরিমানে প্রতিহিংসা স্পৃহা থাকে। সঙ্গী যদি আগে তাঁর সঙ্গে আচ্ছা বিশ্বাসঘাতকতা করে থাকে, সেই বিশ্বাসঘাতকতার প্রতিশোধ নিতে সেও তখন সঙ্গীরকে ঠকায়।

৪) যৌন সম্পর্কে সুখী না হলে- অনেক সম্পর্কই ভেঙে যায় যৌন সম্পর্কের কারণে। সম্পর্কে যৌনতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। স্বামী-স্ত্রী বা প্রেমিক প্রেমিকা একে অপরের থেকে যৌন তৃপ্তি পেতে চায়। অনেকক্ষেত্রেই দেখা যায় স্ত্রী বা প্রেমিকা যতটা যৌন সুখ চাইছে, স্বামী বা প্রেমিক তা পূরণ করতে পারছে না। তখনই মেয়েরা এমন কারও সঙ্গে সম্পর্কে লিপ্ত হয়, যে তাকে যৌন তৃপ্তি দিতে পারে।

৫) সম্পর্কে সুখী না হলে- অনেক সম্পর্ককেই বাইরে থেকে সুখী বলে মনে হয়। কিন্তু দেখা যায়, সব থাকা সত্ত্বেও কীসের যেন অভাবে সম্পর্কে একটা টানহীন ভাব অনুভূত হতে থাকে। এইরকম অবস্থায় মেয়েরা বেশিদিন মানিয়ে চলতে পারে না। তখনই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসতে চায়।






মন্তব্য চালু নেই