মেইন ম্যেনু

যে ৫টি কারণে প্রতিদিন দই খাওয়া উচিত

দইয়ের সাথে বাঙালীর সম্পর্ক অনেক দিন থেকেই। খাওয়ার শেষে পাতে দই না হলে যেন কোন খাওয়া-দাওয়ার অনুষ্ঠানই অসম্পন্ন। আবার অনেকে প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় বাড়িতে দই রাখেন। যারা রাখেন না তাদের তো জানাটা অত্যন্ত প্রয়োজন উপকারি এই খাদ্যবস্তুটির গুণাগুন সম্পর্কে।

১) দই হজমশক্তি বাড়ায় এবং অম্বল, পেটের গোলমাল ইত্যাদি সমস্যা থাকলে দই খাওয়া শরীরের পক্ষে ভাল। দইয়ে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ক্যালসিয়াম এবং প্রোটিন। যাদের দুধ সহ্য হয় না, তাদের জন্য এই দুধজাত খাবারটি আদর্শ।

২) দই হল আদর্শ ফ্যাটজাত খাদ্য, যা শরীরে ব্যাড ফ্যাটের পরিমাণ বাড়ায় না বরং শরীরকে প্রয়োজনীয় পুষ্টি দেয়। অনেকেই হয়তো জানেন না, হ্যাংওভার কাটাতে অত্যন্ত উপকারী এই খাদ্য।

৩) দই হল অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট এবং এটি শরীরকে প্রচুর পরিমাণে এনার্জি সরবরাহ করে। ত্বক ও চুলের পক্ষে খুবই উপকারী এই দই। ত্বকে ও চুলে দইয়ের প্যাক তো লাগানো ভালই। এমনকী রোজ খেলেও ত্বকে ও চুলে ঔজ্জ্বল্য আসে।

৪) স্ট্রেস কাটাতে এবং মুড ভাল করতে এই খাবারের জুড়ি নেই। দই শরীরকে বিভিন্ন ভিটামিন ও মিনারেলস গ্রহণ করতে সাহায্য করে।

৫) নিয়মিত খেলে শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। যে কোনও ঋতুতেই খাওয়া যায়। বিশেষ করে খুচরো খিদের জন্য এর চেয়ে পুষ্টিকর ও সুস্বাদু খাবার আর হয় না।






মন্তব্য চালু নেই