মেইন ম্যেনু

যে ৬ টি ভুল চুলের উপর প্রভাব ফেলে

প্রতিটা মানুষেরই স্বপ্ন থাকে উজ্জ্বল ঝলমলে চুলের। কিন্তু বেশিরভাগ মানুষই নিজের অজান্তেই এমন কিছু কাজ করেন যার কারণে তার চুলের ক্ষতি হয়, চুলের সৌন্দর্য পুনরুদ্ধার করা সম্ভব হয় না। এর ফলেই চুল পড়া, খুশকি সহ আরো কিছু সমস্যা দেখা দেয় যার কারণে চিন্তায় আপনার ঘুম দূর হয়ে যায়। চুলের যত্নের বিষয়ে এমন কিছু ভুলের কথাই আজ আমরা জেনে নিব। যদি আপনি এই ভুলগুলো করে থাকেন তাহলে অনেক বেশি দেরি হয়ে যাওয়ার আগেই বন্ধ করতে পারবেন।

১। অনিয়মিতভাবে চুল পরিষ্কার করা

ঘন ঘন চুলে শ্যাম্পু ব্যবহার করলে চুলের ক্ষতি হয় বলে সবাই জানে। এটা সত্যি যদি আপনি রাসায়নিক শ্যাম্পু ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু যদি আপনি মধ্যম কোন প্রাকৃতিক শ্যাম্পু ব্যবহার করে থাকেন তাহলে তা আপনার চুলকে পরিষ্কার করবে এবং স্বাস্থ্যবান থাকতে সাহায্য করবে। তাই প্রাকৃতিক শ্যাম্পু দিয়ে চুল পরিষ্কার করুন ২/৩ দিন পর পরই।

২। ভেজা চুল আঁচড়ানো

ভেজা চুল আঁচড়ালে চুলের ক্ষতি হয়, মাথার তালু থেকে চুল উঠে আসে। ভেজা চুল আঁচড়ালে ভালো ও শক্তিশালী চুলও ভেঙ্গে যায় এমনকি নতুন চুলও। তাই ভেজা অবস্থায় চুল আঁচড়াবেন না।

৩। ড্রায়ার ব্যবহার করা

ঘন ঘন ড্রায়ার ব্যবহার করলে চুলের অপূরণীয় ক্ষতি হয়। তাই যতোটা সম্ভব চুল শুকানোর জন্য ডায়ার ব্যবহার এড়িয়ে চলুন। আর যদি ব্যবহার করতেই হয় তাহলে যতোটা সম্ভব চুল থেকে দূরে সরিয়ে ড্রায়ার ব্যবহার করুন। তোয়ালে দিয়ে মুছে নেয়াই সবচেয়ে ভালো অথবা পরিষ্কার ও নরম তোয়ালে দিয়ে কিছুক্ষণ চুল পেঁচিয়ে রাখলেও চুল শুকিয়ে যাবে।

৪। হেয়ার কালার

চুলে কালার করাটা বর্তমানে ফ্যাশন ট্রেন্ড হলেও রাসায়নিক উপাদান দিয়ে তৈরি বলে এগুলো চুলের শত্রু। শুধু হেয়ার কালারই নয় সকল ধরনের হেয়ার স্প্রে এবং হেয়ার জেল অথবা ক্রিম থেকে যদি আপনার চুলকে দূরে রাখতে পারেন তাহলে আপনার চুল আপনাকে ধন্যবাদ জানাবে।

৫। কন্ডিশনার এড়িয়ে যাওয়া

আপনার চুলের আর্দ্রতা বজায় রাখতে ভালো মানের কন্ডিশনার ব্যবহার করুন। কন্ডিশনার ব্যবহার না করলে বাহিরের পরিবেশ দূষণের ফলে আপনার চুলের চূড়ান্ত রকমের ক্ষতি হয় এবং খুব কম সময়েই চুলের উজ্জ্বলতা নষ্ট হয়ে যায়।

৬। লম্বা চুল

লম্বা চুল দেখতে সুন্দর হলেও চুলের গোড়ায় অতিরিক্ত চাপ ফেলে বলে চুল পড়া শুরু হয়। যদি আপনার অনেক বেশি চুল পড়ে এবং পর্যাপ্ত সময় নিয়ে চুলের যত্ন না নিতে পারেন তাহলে চুলের স্বাস্থ্য ঠিক রাখার জন্য চুল কেটে ছোট করতে পারেন।

সূত্র : প্রাকটো






মন্তব্য চালু নেই