মেইন ম্যেনু

যে ৭টি গুণ আপনাকে অনের চোখে পছন্দের মানুষ হিসেবে গড়ে তুলবে!

স্বভাবগতভাবে প্রতিটি মানুষই চায় সবাই তাকে পছন্দ করুক। একজন মানুষ কি সবার পছন্দের পাত্র হতে পারে? অন্যের অপছন্দের পাত্র হওয়া খুব সহজ ঠিক তেমনি পছন্দের মানুষ হওয়া অনেক কঠিন। অনেকের ধারণা কিছু মানুষের প্রাকৃতিকভাবে কিছু বৈশিষ্ট্য থাকে, যার কারণে সবাই তাকে পছন্দ করে। আপনি লক্ষ্য করলে দেখতে পাবেন তাদের বৈশিষ্ট্য বা স্বভাবগুলো নিজের মধ্যে তৈরি করা সম্ভব। এই স্বভাবগুলো নিজের মধ্যে তৈরি করে নিয়ে, আপনিও হয়ে যেতে পারেন সবার পছন্দের মানুষ।

১। আপনি সবজান্তা নন

পৃথিবীর সব বিষয়ে আপনার জ্ঞান নেই। মনে রাখবেন আপনি সবজান্তা নন। অন্যদের কথা শুনুন, তাদের আলোচনায় যোগ দিন। প্রয়োজনে তাদের পরামর্শ দিন। অন্যদের কাছে নিজেকে পছন্দীয় মানুষ করে তলুন।

২। নিজের কাজে মনোযোগ দিন

অন্যের বিষয়ে বা কাজে নাক গলানো কেউ পছন্দ করেন না। এটি খুবই বিরক্তকর যখন আপনি নিজ থেকে অন্যের বিষয়ে মতামত দিবেন। আর এই একটি বিষয়ই আপনাকে অন্যের কাছে অপছন্দের মানুষ হিসেবে তুলে ধরবে।

৩। ফোন এড়িয়ে চলুন

আপনি যখন সবার সাথে কোন বিষয়ে কথা বলছেন বা আলোচনা করছেন তখন মোবাইল দূরে রাখুন। ফোনে কথা বলা, ম্যাসেজ করা এই কাজগুলো আপনাদের আলোচনায় বাধা সৃষ্টি করে থাকে। যা অন্যের বিরক্তের কারণ হয়ে পড়ে। আপনি যখন কোন বিষয়ে কথা বলছেন, সেদিকে সম্পূর্ণ মনোযোগ দিন।

৪। হিংসাকে দূরে রাখুন

হিংসা শুধু সম্পর্ক নষ্ট করে না, নিজেরও ক্ষতি করে থাকে। অন্যের সাফ্যলকে হিংসা না করে প্রশংসা করুন। হিংসুটে মানুষকে কেউ পছন্দ করে না। স্বচ্ছ মনের মানুষকে সবাই পছন্দ করে।

৫। ধৈর্যশীল হন

আপনি অন্যকে সুযোগ দিন, ভুল করলে ক্ষমা করুন। আপনি জানেন সবসময় পরিকল্পনামত হয় না। তাই রাগ না করে ধৈর্য ধরুন, তাদেরকে ভুল ধরিয়ে দিন। এই একটি কাজ আপনাকে সবার পছন্দের মানুষ করে তুলবে।

৬। হাসিমুখে কথা বলুন

“হাসি” কে না পছন্দ করে না বলুন? সবার সাথে হাসিমুখে কথা বলুন। এটি আপনাকে সবার কাছে যেতে সাহায্য করবে। আমেরিকার প্রেসিডেন্ট Franklin D. Roosevelt সাফ্যলের মূল হাতিয়ার ছিল “তার মিলিয়ন ডলার স্মাইল” এমনটি মনে করেন রাইটার Hill।

৭। অন্যের ভাল দিকটি দেখুন

আপনার চারপাশে নানারকম মানুষ রয়েছে। এককে মানুষের ব্যক্তিত্ব একেক রকম। ভাল খারাপ নিয়ে মানুষ। চেষ্টা করুন মানুষের ভাল দিকটা দেখতে। অন্যের খারাপ দিকটা না দেখে ভাল দিকটা দেখুন। এবং সেটি দ্বারা তাকে মূল্যায়ন করুন।

আপনার আন্তরিকতা, সততা, অন্যের প্রতি সম্মান, আপনাকে অন্যদের কাছে পছন্দের মানুষ হিসেবে উপস্থাপন করবে।






মন্তব্য চালু নেই