মেইন ম্যেনু

যৌতুকের দাবীতে স্ত্রীর পা ভেঙ্গে দিয়েছে পাষন্ড স্বামী

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় যৌতুকের দাবীতে মনিরা খাতুন নামে এক গৃহবধুকে পিটিয়ে পা ভেঙ্গে দিয়েছে পাষন্ড স্বামী। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে উপজেলার লাঙ্গলঝাড়া গ্রামে।

আহত গৃহবধূর পিতা কলারোয়া পৌর সদরের গদখালি গ্রামের আশরাফ আলী জানান, বিগত ২০০৫ সালে উপজেলার লাঙ্গলঝাড়া গ্রামের মৃত রুস্তম আলী সরদারের ছেলে ইমদাদুল ইসলামের সহিত তার কন্যা মনিরা খাতুনের ইসলামিক শরিয়াহ মোতাবেক বিয়ে হয়। বিয়ের সময় জামাই ইমদাদুল ইসলামকে নগদ ৫০ হাজার টাকাসহ ৪০ হাজার টাকার আসবাবপত্র প্রদান করা হয়।

বিয়ের কিছুদিন পর থেকে জামাই ইমদাদুল ইসলাম যৌতুক দাবীতে প্রায় সময় স্ত্রী মনিরা খাতুনকে মারপিট করে। এরপর পরে মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে জামাই ইমদাদুলকে যৌতুক বাবদ নগদ ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা দেওয়া হয়।

এরইমধ্যে তাদের মধ্যে তুলি নামে একটি কন্যা সন্তান জন্ম নেয়। এরপর থেকে নতুন করে আবারও যৌতুকের দাবিতে শারিরীক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতে থাকে। এরই জের ধরে শুক্রবার সকালে স্ত্রী মনিরাকে পারপিট করে পা ভেঙ্গে দেয়। পরে পিতার বাড়ির লোকজন জানতে পেরে তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে কলারোয়া হাসপাতালে ভর্তি করে।

হাসপাতালে ভর্তি আহত মনিরা খাতুন জানান, তার স্বামী ইমদাদুল ইসলাম সম্প্রতি গোপনে আরেকটি বিয়ে করায় তাকে তালাক দিবে বিধায় পিতার বাড়ি থেকে প্রায় সময় যৌতুক দাবি করে। যৌতুক দিতে অস্বীকার করায় তাকে প্রায় সময় এ ভাবে পারপিট করে আসছে।

এ ব্যাপারে গৃহবধু মনিরা খাতুন বাদী হয়ে কলারোয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে জানান।






মন্তব্য চালু নেই