মেইন ম্যেনু

যৌনতায় রাজি না হওয়ায় ১৯ নারীকে হত্যা করেছে আইএস

জঙ্গিদের সঙ্গে যৌনসংসর্গে নারাজ হওয়ায় ১৯ নারীকে নৃশংস ভাবে হত্যা করেছে আইসিস। এক কুর্দি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, গত জুনে ইরাকের মসুল শহর দখলে নেওয়ার পর, আরও অনেক মহিলার সঙ্গে ওই ১৯ জনকেও তুলে নিয়ে গিয়েছিল আইএস জঙ্গিরা।

আইএস বন্দি নারীদের যৌনসংসর্গে লিপ্ত হতে যে বাধ্য করে, জাতিসংঘের রিপোর্টেও তার উল্লেখ রয়েছে। আইএস-এর কবল থেকে কোনও ক্রমে বেরিয়ে আসা কয়েক জন নারী অবর্ণনীয় যৌন অত্যাচারের উল্লেখ করেছেন। জঙ্গিরা ইচ্ছে হলে, কখনওসখনও তাঁদের বিয়েও করে। এই নারী হয় ক্রিস্টান নয়তো ইয়াজিদি সম্প্রদায়ের। এক একজন নারীকে ছ-সাত জনের সঙ্গে শুতে বাধ্য করা হয়। আপত্তি করলে, মৃত্যুই ভবিতব্য।

মনকী দর হেঁকে প্রকাশ্যে বিক্রিও করা হচ্ছে নারীদের। মহিলার বয়স অনুযায়ী দাম হাঁকা হয়। ৪০ থেকে ৫০-এর মধ্যে বয়স যে নারীদের, তাঁদের দরই সবচেয়ে কম। বিক্রি করা হয় ৪৩ ডলারে। সব থেকে বেশি দামে বিক্রি হয় এক থেকে ৯ বছর বয়সিরা। দাম ১৭২ মার্কিন ডলার। ১০ থেকে ২০-র মধ্যে বয়স হলে, দাম ওঠে ১৩০ মার্কিন ডলার। যে কোনও ব্যক্তি এই নারীদের কিনতে পারেন। গত বছরই এই ‘যৌন দাসী’দের দামের একটি তালিকা প্রকাশ করেছে আইএস।






মন্তব্য চালু নেই