মেইন ম্যেনু

রংপুরে এমপি লিটনের প্রথম জানাজা সম্পন্ন

সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত গাইবান্ধা ১ আসনের আওয়ামী লীগদলীয় সাংসদ মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের প্রথম জানাজা সম্পন্ন হয়েছে। আজ রবিবার দুপুর পৌনে ১টায় রংপুর পুলিশ লাইন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

পরে এমপি লিটনের মরদেহে বিভাগীয় ও জেলা প্রশাসন পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তা, রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতারা নিজ নিজ সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। এর আগে নিহত এমপি লিটনের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে পুলিশের একটি চৌকস দল গার্ড অব অনার প্রদান করে।
জানাজা শুরু করার আগে আওয়ামী লীগের রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হক বলেন, একজন নিবেদিতপ্রাণ রাজনৈতিক নেতার এ রকম মৃত্যু কোনোভাবেই কাম্য ছিল না। বাড়িতে প্রবেশ করে গুলি করে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। তিনি জামায়াত-শিবির ও জঙ্গিবিরোধী আন্দোলনে সামনের কাতারে থাকতেন। তার জন্য দোয়া চাই।

জানাজা শেষে এমপি লিটনের মরদেহ হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে বারডেমের হিমঘরে রাখার পর কাল সোমবার সকাল ১০টায় জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পরে সোমবার রাতেই তার মরদেহ গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনডাঙ্গা এলাকায় নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে তৃতীয় জানাজা শেষে সোমবার বিকালেই তাকে দাফন করা হবে বলে আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর কবির নানক জানিয়েছেন।

এদিকে আবহাওয়া অনুকূলে না থাকায় দুপুর দেড়টা পর্যন্ত তার মরদেহ ঢাকায় নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি। তবে আবহাওয়া ভালো হলেই দ্রুত হেলিকপ্টারে করে লাশ ঢাকায় পাঠানো হবে বলে পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, শনিবার সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের সাহাবাজ গ্রামে লিটনকে তার বাড়িতে ঢুকে গুলি করে দুর্বৃত্তরা। রাত সাড়ে ৭টার দিকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।






মন্তব্য চালু নেই