মেইন ম্যেনু

রওশনের কাছে ছিটমহলে দুর্বৃত্তদের তালিকা চান প্রধানমন্ত্রী

সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ মোকাবেলায় দেশবাসীর সহযোগিতা কামনা করে প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘বাংলাদেশের মানুষ অনেক চড়াই-উৎড়াই পার হয়েই আজ এ পর্যায়ে এসেছে। যারা সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের সঙ্গে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। এদের ধরিয়ে দিতে হবে এবং শাস্তির মুখোমুখি করতে হবে।’ তিনি ছিটমহলে থাকা দুর্বৃত্তদের তালিকা জমা দেয়ার জন্য বিরোধী দলীয় নেতার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

বুধবার স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে একাধিক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা এ কথা বলেন। এসময় বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদ বহুযুগ পর ছিটমহলকে বাংলাদেশের ভূখণ্ডের সঙ্গে সম্পৃক্ত করায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। একইসঙ্গে ওই ছিটমহলে কিছু দুর্বৃত্ত ঢুকে পড়েছে কি না, সে সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য জানতে চান।

জবাবে সংসদ নেতা শেখ হাসিনা বলেন, ‘দীর্ঘ ৬৮ বছর ধরে ছিটমহলবাসী কোনো দেশের সম্পদ ছিল না। তারা এতোদিন বিচ্ছিন্ন ছিল। তখন সেখানে কিছু দুর্বৃত্ত বা সন্ত্রাসী থাকলেও থাকতে পারে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিলুপ্ত ছিটমহলের সেই অবস্থা এখন পাল্টে গেছে। সেখান থেকে এখন দুর্বৃত্তরা কোথায় পালিয়ে গেল জানি না। তবে বিরোধী দলের নেতার (রওশন এরশাদ) কাছে বিলুপ্ত ছিটমহলে দুর্বৃত্ত বা সন্ত্রাসীদের ব্যাপারে কোনো তথ্য বা তালিকা থাকলে আমাদের দিয়ে সহযোগিতা করুন। তালিকা পেলে আমরা দুর্বৃত্তদের খুঁজে বের করে ব্যবস্থা নিতে পারবো। আমি বিরোধী দলের নেতাকে আশ্বস্ত করে বলতে চাই, বিলুপ্ত ছিটমহলবাসীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আমরা সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছি।’






মন্তব্য চালু নেই