মেইন ম্যেনু

রডের পরিবর্তে বাঁশ: খবরটি বানোয়াট বলে দাবি করেছে ইসিএল

বাংলাদেশ ফাইটোস্যানিটারি শক্তিশালীকরণ প্রকল্পে চুয়াডাঙ্গা জেলার দর্শনা স্থলবন্দরে নির্মাণাধীন ভবনে রডের পরিবর্তে বাঁশ ব্যবহৃত হয়েছে বলে যে খবর পত্রিকায় ছাপানো হয়েছে, তা বানোয়াট বলে দাবি করেছে ইঞ্জিনিয়ার্স কনসোর্টিয়াম লিমিটেড (ইসিএল)।

সোমবার দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সেমিনার কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে ইসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সাত্তার এ দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন পত্রিকায় যে সংবাদটি ছাপানো হয়েছে সেটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। এটি মূলত আমাদের প্রতিষ্ঠানকে হেয়প্রতিপন্ন করার জন্য উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে করা হয়েছে। পত্রিকায় যে ছবিটি ছাপানো হয়েছে তার সাথে নির্মাণাধীন ভবনের কোনো প্রকার মিল নেই।’

তিনি বলেন, ‘আমরা জানতে পারি যে, নির্মাণসামগ্রী সরবরাহ নিয়ে ঠিকাদারের সাথে স্থানীয় লোকদের বিরোধ ছিল। যার কারণে ঠিকাদারের ক্ষতি করার জন্য ঘটনাটি সাজানো হয়েছে। পরবর্তী সময়ে তা আমাদের ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমরা এ ন্যক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই।’

তিনি বলেন, ‘ঘটনাটি সত্য নয়। যেকোনো মহল থেকে তদন্তকে আমরা স্বাগত জানাব। কেউ যদি আমাদের কাজের মান খারাপ প্রমাণ করতে পারে, তাহলে আমাদের প্রতিষ্ঠান তার দায়ভার বহন করবে।’

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইসিএলের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার দেওয়ান নুরুজ্জামান, পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার আবদুল মালেক, ইঞ্জিনিয়ার বশির আহমেদ।






মন্তব্য চালু নেই