মেইন ম্যেনু

রমজানে ইসরায়েলের পানি বন্ধ, কষ্টে হাজারো ফিলিস্তিনি

পবিত্র রমজানে ফিলিস্তিনিদের পানি সরবরাহ কমিয়ে দিয়ে কষ্টে ফেলেছে ইসরায়েলী কর্তৃপক্ষ। ইসরায়েলের জাতীয় পানি কোম্পানি ফিলিস্তিনি অধ্যুষিত পশ্চিমতীরের বেশিরভাগ গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় পর্যাপ্ত পানি সরবরাহ বন্ধ করে দেয়ার পর হাজার হাজার ফিলিস্তিনি পানির কষ্টে ভুগছে।

ফিলিস্তিনি অঞ্চলগুলোতে পানি ও বিদ্যুৎ সরবরাহ কমিয়ে দেয়া ইসরায়েলের পুরনো কৌশল। এর আগেই অনেকবার তারা এই কাজ করেছে। কিন্তু ইসলামের পবিত্র মাস রমজানে পানির কষ্ট রোজাদারদের জন্য সবচেয়ে ভয়াবহ কষ্ট।

মেকরট নামের যে কোম্পানি ফিলিস্তিনি শহর-গ্রামে নলের মাধ্যমে পানি সরবরাহ করতো তারা হঠাৎ করেই বেশ কয়েকটি গ্রাম ও শহরে পানি বন্ধ করে দিয়েছে।

আয়মান রবি নামের ফিলিস্তিনি হাইড্রোলজি গ্রুপের পরিচালক আলজাজিরাকে জানিয়েছেন, অনেক জায়গাতে এমনকি ৪০ দিনেরও বেশি সময় ধরে পানি নেই। মানুষ পানিবাহী ট্রাক থেকে পানি কিনে কিংবা ঝর্নার মত প্রাকৃতিক উৎস থেকে পানি নিয়ে জীবনধারণ করছেন।

জাতিসংঘের মতে, প্রতিটি মানুষের প্রতিদিন কমপক্ষে সাড়ে ৭ লিটার পানি লাগে। কিন্তু তাপমাত্র যেখানে ৩৫ ডিগ্রীর উপরে সেখানে পানি লাগে আরও অনেক বেশি। ১৯৬৭ সালের পর থেকেই ইসরায়েলিরা ফিলিস্তিনি বসবাসরত পশ্চিমতীর ও গাজা স্ট্রিপে পানি সরবরাহ কমাতে শুরু করে। অথচ তারা নিজেরা ফিলিস্তিনিদের চেয়ে ৫ গুণ বেশি পানি ব্যবহার করে।






মন্তব্য চালু নেই