মেইন ম্যেনু

রাউজানে ঈদের আনন্দ নেই যেসব পরিবারে

মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদ-উল-ফিতর সেয়াম-সাধনার রমজানুল মোবারকের রোজা পালন শেষে উদযাপিত হয়। সেই দিন মুখরিত হয় ’রমজানের রোজার শেষে এল খুশির ঈদ’ স্লোগানে। ঈদ মানে আনন্দ, ঈদ মানে খুশি, ঈদ মানে পরিবারের সকলকে নিয়ে আনন্দে মেতে উঠা, আত্মীয়-স্বজনের সাথে ভাব বিনিময় করা। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাসের শিকার চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলায় কিছু পরিবারে এবারের ঈদে তার ব্যতিক্রম। অনেক পরিবারে এবারের ঈদের আনন্দ বিষাদপূর্ণ হয়ে গেল ঈদের আগেই। চিরকালের জন্য স্বজন হারানো পরিবারগুলোর এবার ঈদের দিন কাটবে চোখের জলে। পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে এখানকার মানুষের খুশির সীমা নেই। রাউজানের বিভিন্ন স্থানে স্বজন হারাদের মনে একটুও আনন্দ নেই, আছে শুধু স্বজন হারানোর বেদনা। ঈদের সব আয়োজন পরিবারে সদস্যের অনুপস্থিতিতে পরিণত হয়েছে বেদনার নীল রংয়ের। ঈদ ঘনিয়ে আসতেই নিহতদের নানা স্মৃতি কাতর করে তুলছে পরিবারের সদস্যদের। স্বজন হারানোর ঈদ প্রস্তুতির খোঁজখবর নিতে গিয়ে জানা যায়, রাউজান পৌরএলাকার সুলতানপুর ৪নং ওয়ার্ডের হাজী আবুল বশরের বাড়ীর বাড়ীর আব্দুল্লাহ আল তানভীর (২০) নামের এক তরুন রাজধানীতে মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হন। বছর খানেক আগে প্রবাসে স্বামীর মৃত্যু আর চলতি বছরের ২৭ মে মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় পুত্রকে হারিয়ে এখন পাগল প্রায় তরুনের মা। ঈদের আনন্দ নয়, যেন গত বছরের ঈদের স্মৃতি ভাবিয়ে তুলছে তাকে। প্রতি বছর ঈদ এলেই আব্দুল্লাহ আল তানভীরের নতুন জামা কেনার ধূম পড়ত। শত অভাবের মাঝেও মা কখনো ছেলেকে অভাব বুঝতে দেয়নি। অপরদিকে মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনা কেড়ে নিল রাউজানের নোয়াপাড়া এলাকার জনি নামের আরেক তরুনের এবারের ঈদ। সে নোয়াপাড়া ইউনিয়নের চৌধুরী হাট মুসলিম উচ্চ বিদ্যালয়ের পিছনের রুহুল আমীন সওদাগরের বাড়ীর ফজল কোম্পানীর ছেলে । ঈদের জামা কিনে ঈদ হলো না তার। ঈদের আনন্দ বিষাদপূর্ণ হয়ে গেল ঈদের আগেই নিহতের পরিবারে । জানা গেছে, গত মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) রাত ৯ টায় রাউজানের নোয়াপাড়া পটিয়া পাড়া এলাকায় মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় মারা যায় ওই তরুন। ২০১৪ সনের ২৩ আগস্ট রাউজানের নোয়াপাড়া এলাকার আহমদ কিবরিয়া (১৫) নামের এক কাতার প্রবাসী সেখানকার একটি আবাসিক ভবনের ছাদ থেকে ছিটকে পড়ে নিহত হয়। সে উপজেলার নোয়াপাড়া কচুখাইন গ্রামের মোহাম্মদীয়া দরবার শরীফস্থ চান মিয়া সওদাগর বাড়ীর বাসিন্দা আব্দুল আজিজের পুত্র। ২০১৪ সনের ৩ সেপ্টম্বর ঢাকায় কর্মস্থলে যাওয়ার পথে কুমিল্লায় সড়ক দূর্ঘটনায় মো.পারভেজ (২৬) নামের এক যুবক নিহত হয়। তিনি ইয়াছিন নগর এলাকার বাসিন্দা। তার পরিবারেও এবারের ঈদ আনন্দে ভাটা পড়েছে। এছাড়ও আরো যাদের অনুপস্থিতিতে পরিবারে এবারের ঈদের আনন্দ বিষাদপূর্ণ সংক্ষিপ্ত রূপে উল্লেখ করছি। গত ২০১৪ সনের ৯ নভেম্বর আবুধাবিতে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হন মো. সরোয়ার আলম (২৬) নামের এক যুবক। তিনি উপজেলার নোয়াজিষপুর গ্রামের রহমত আলী মিয়া বড়ীর মৃত জালাল আহমদের পুত্র। ২০১৪ সনের ৩ ডিসেম্বর মো.আবছার (৩২) নামের এক যুবক সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হন। সে উপজেলার গুজরা ছানিপাড়া এলাকার মোহাম্মদ আলীর পুত্র। ২০১৪ সনের ২৩ ডিসেম্বর ট্রাক চাপায় মো.সাইফুল্ ইসলাম (৫৫) নামের এক ব্যক্তি নিহত হন। সে উপজেলার গহিরা মোবারকখীল এলাকার আনোয়ার খানের পুত্র। চলতি ২০১৫ সনের ৯ জানুয়ারী ইটবাহী জীপ (চাঁদের গাড়ী) চাপায় মো.জাহেদুল ইসলাম (১৬) নামের এক স্কুল ছাত্র নিহত হন। সে উপজেলার এয়াছিন নগর এলাকার বাসিন্দা মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসী সিরাজ মিয়ার পুত্র। চলতি বছরের ১৬ ফেব্রুয়ারি আরব আমিরাতের শারজাস্থ নিজ কর্মস্থলে হঠাৎ বুকের ব্যাথা অনুভব করে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন উপজেলার গহিরা এলকার হাজী ইউছুপের পুত্র মো.আইয়ুব (৩৮)। গত ১৯ ফেব্রুয়ারী সংযুক্ত আরব আমিরাতের (আবুধাবি) শিল্প নগরী মোছাফ্ফাহ ৭নং এলাকায় একটি টায়ারের অগ্নিাকান্ডের ঘটনায় রাউজানের ৩ ব্যক্তি নিহত হন । নিতদের মধ্যে রয়েছে রাউজান বাগোয়ান ইউনিয়নের পাঁচখাইন দরগাহ বাড়ীর মৃত নুর মোহাম্মদ মাস্টারের পুত্র মহিউদ্দীন (৪০), পশ্চিম গুজরার বদুমুন্সিপাড়া এলাকার ইসমাঈল ও নোয়াপাড়া ইউনিয়নের চৌধুরীহাট এলাকার আমজাদের পুত্র এনাম উদ্দীন। গত ২৫ ফেব্রুয়ারি প্রতিপক্ষের গুলিতে যুবলীগ নেতা শহিদুল ইসলাম (৩৬) খুন হয়। সে উপজেলার হরিষখান পাড়া এলাকার আলী আহম্মদের পুত্র। গত ৯ মার্চ ওমানে সড়ক দূর্ঘটনায় ফজল আহম্মদ (৪৮) নামের এক ব্যক্তি নিহত হন। তিনি উপজেলার নোয়াপাড়া শেখপাড়া গ্রামের মাওলানা শফিউদ্দীন (রহঃ) বাড়ীর আহম্মদ ছবুরের পুত্র। গত ১১ মার্চ সড়ক দূর্ঘটনায় নুরুল ইসলাম (৬০) নামর এক ব্যক্তি নিহত হন। সে উপজেলার দেওয়ানপুর গ্রামের পাঠান পাড়ার এবাদত খানের পুত্র। গত ১৭ জুন মাসকেটের ওমানে ডার সাইট এলাকায় মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন মাওলানা আব্দুস ছালাম (৫২) নামের এক মসজিদের ঈমাম। তিনি উপজেলার পূর্ব গুজরা ইউনিয়নের আধার মানিক গ্রামের নতুন বাড়ীর মৃত ফোরকান আহমদের পুত্র। গত ২৮ জুন রাউজান ইউনিয়নের মঙলখালী গ্রামে নির্মাণাধীন একটি মাদ্রাসার পাকা দেওয়াল ভেঙে মো.আরমান নামের এক মাদ্রাসা ছাত্র নিহত হয়। সে ওই এলাকার প্রবাসী মো. আবুর পুত্র। । ঘরে ঘরে আনন্দের বদলে বেদনার কালো ছায়া। স্বজন হারানোর ঈদ প্রস্তুতির খোঁজখবর নিতে গিয়ে উঠে আসে এমন চিত্র। যেখানে ঈদের আনন্দে মাতাল থাকার কথা সেখানে বিরাজ করছে প্রিয়জন হারানো শূণ্যতা। অনেক প্রতিবেশী এলাকার প্রিয় সন্তানকে হারিয়ে হতাশ হয়ে পড়েছে। ঈদের আনন্দ যেন তাদের জীবনে হতাশায় পরিণত হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই