মেইন ম্যেনু

রাউজান রাবার বাগান কর্তৃপক্ষ কেটে দিয়েছে শতাধিক সেগুন গাছ

চট্টগ্রামের রাউজান রাবার বাগান কর্তৃপক্ষ কেটে দিয়েছে শতাদিক সেগুন, আকাশমনি ও গামারী গাছ। অপ্রাপ্ত বয়সী এই বৃক্ষ কর্তনের ফলে স্থানীয় ও বাগান কর্তৃপক্ষের মধ্যে দেখা দিয়েছে উত্তেজনা।

জানা যায়, প্রবাসী সিরাজুল ইসলাম কাউখালী উপজেলার বেতবুনিয়া ইউনিয়নের বটতলী হাজীপাড়া এলাকায় খতিয়ান ভুক্ত এক একর জায়গা ক্রয় করে বিভিন্ন প্রজাতির বাগান ও বাড়ি করে বসবাস করছে গত দুই যুগ ধরে। বাড়ির আঙ্গিনাসহ আশপাশে লাগানো সিরাজের গাছ গুলো রাউজান রাবার বাগান ম্যানেজার লোকজন পাঠিয়ে কিছু বুঝে উঠার আগে এলোপাতারি কেটে সাবার করে দিয়েছে।

প্রবাসী সিরাজুল ইসলামের কেয়ারটেকার কামাল উদ্দিন সংবাদ প্রতিনিধি’কে জানান, গত মঙ্গলবার একদল বাগনের কর্মচারী এসে কিছু বুঝে উঠার আছে কেটে দেয়। তিনি আরো জানান, ছোট ও মাঝারি সাইজের গাছ গুলো গত দশ বছর ধরে পরিচর্য্যা করেছি। রাবার বাগানের মারমুখি আচরণ ও গাছ কেটে দেয়ায় দীর্ঘদিনের শ্রম ও আর্থিক ভাবে ক্ষতি হয়েছে। তার দাবি পঞ্চাস হাজার টাকা মূল্যের গাছ কেটে ক্ষতি করেছে তারা।

কেয়ারটেকার কামালের স্ত্রী রেহেনা বেগম জানান, সন্তানের মতো লালন করা গাছ গুলোকে বাচাঁতে অনেক আকুতি মিনতি জানিয়েছি। কিন্ত বাচাঁতে পারিনি, তাদের মনভাবে দেখে মনে হয়েছে তারা সন্ত্রাসী প্রকৃতির।

সরোজমিন পরিদর্শন ও স্থানীয় লোকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, সিরাজুল ইসলাম ছাড়াও বাগান কর্তৃপক্ষ আরো কয়েক ব্যাক্তির গাছ কেটে দিয়েছে। এই ভাবে জোর পূর্বক গাছ কেটে দেয়ায় স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভ ও উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। গাছ কেটে দেয়া প্রসঙ্গে জানতে চাইলে রাউজান রাবার বাগানের ম্যানেজার শুবন কান্তি সাহা দাবি করেন, সিরাজুল ইসলামসহ যাদের গাছ কর্তন করা হয়েছে তারা রাবার বাগানের জায়গার উপর বাগান করেছে।

দখলকৃতদের প্রথমে গাছ কেটে নেয়ার জন্য নোটিশ দিয়েছি। তাদের সারা না পেয়ে থানায় জিডি করেছি। তারপর দখলকৃত জায়গা উদ্ধারে পুলিশের সহযোগিতায় কাজ চলছে। তিনি আরো জানান, এক’শ একর জায়গার উপর নতুন করে বাগান করার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। সেই লক্ষে অতীতে দখল হওয়া জায়গা উদ্ধার করা হচ্ছে।






মন্তব্য চালু নেই