মেইন ম্যেনু

রাজকাহিনীর জয়ার অভিনয়ে মুগ্ধ কলকাতা

‘রাজকাহিনী’ ছবিতে বাংলাদেশের অভিনেত্রী জয়া আহসানের অভিনয়ে মুগ্ধ হয়েছেন কলকাতার দর্শকেরা। ফেসবুক এবং বিভিন্ন ব্লগে এ ছবি নিয়ে ইতিবাচক নানা মন্তব্য লেখা হচ্ছে। আর এসব লেখায় আলাদা করে উল্লেখ করা হয়েছে জয়া আহসানের অভিনয়ের প্রশংসা।

টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইনেও ‘রাজকাহিনী’ ছবির সমালোচনা প্রকাশিত হয়েছে। আর এখানেও জয়ার অভিনয়ের ভূয়সী প্রশংসা করা হয়। আলাদাভাবে উল্লেখ করা হয়েছে ছবিতে রুদ্রনীলের সঙ্গে জয়ার আবেগঘন দৃশ্যটির কথা। এই ছোট্ট একটি দৃশ্যেও জয়া নিজের অভিনয়-দক্ষতার প্রমাণ রেখেছেন।

গত শুক্রবার প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে ছবিটি। ১৯৪৭ সালের দেশভাগের প্রেক্ষাপট নিয়ে ‘রাজকাহিনী’ ছবিটি তৈরি করেছেন সৃজিত মুখোপাধ্যায়।

এর আগে, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কলকাতার সিটি মাল্টিপ্লেক্সে ‘রাজকাহিনী’ ছবির উদ্বোধনী প্রদর্শনী হয়। এখানে উপস্থিত ছিলেন প্রসেনজিৎ, দেব ও ছবির পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। ছবির অভিনয়শিল্পীদের মধ্যে ছিলেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, জয়া আহসান, সুদীপ্তা চক্রবর্তী, সোহিনী সরকার, রিধিমা ঘোষ, সায়নী ঘোষ, প্রিয়াঙ্কা, এনা সাহা, শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়, যিশু সেনগুপ্ত, আবির চট্টোপাধ্যায় ও কাঞ্চন মল্লিক।

3c70ec67d6f0ac1f24b8e99a768bb8b9-Rajkahini-Cap-1

আজ মঙ্গলবার দুপুরে কলকাতা থেকে মুঠোফোনে জয়া জানান, বৃহস্পতিবার তিনি দেশে ফিরছেন। ফিরেই অটিস্টিক শিশুদের নিয়ে একটি ছবির কাজ শুরু করবেন তিনি। ছবির নাম ‘পুত্র’। পরিচালনা করবেন সাইফুল ইসলাম মান্নু।

এদিকে জয়া জানিয়েছেন, কলকাতায় পূজার সময়টা দারুণ উপভোগ করছেন তিনি। প্রতিদিনই বিভিন্ন পূজামণ্ডপে যাচ্ছেন। বললেন, ‘এবারই প্রথম পূজার সময় কলকাতায় আছি। ছবির প্রচারণায় দুটি পূজামণ্ডপে গিয়েছি। এখন মা আমার সঙ্গে আছেন। মাকে সঙ্গে নিয়ে গিয়েছি আরও কয়েকটি পূজা মণ্ডপে। এখন তো রাস্তায় গাড়ি নিয়ে বের হওয়ার উপায় নেই। হেঁটে যেতে হয়। সেদিন তো গোল পার্ক থেকে যোধপুর পার্ক পর্যন্ত হেঁটে এসেছি। কতটা পথ, তা বলে বোঝাতে পারব না।’

জয়া আহসান এখন কলকাতার মানুষদের কাছে খুবই পরিচিত মুখ। পথে হাঁটতে গিয়ে কলকাতায় নিজের তারকাখ্যাতি কেমন উপভোগ করেছেন? জিজ্ঞেস করলে জয়া বলেন, ‘সবাইকে শারদীয় শুভেচ্ছা।’






মন্তব্য চালু নেই