মেইন ম্যেনু

রাজধানীতে জোড়া খুন: আবারো বিশ্ব গণমাধ্যমে বাংলাদেশ

মাত্র একদিন আগেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনার বিষয়ে পরিণত হয়েছিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষককে কুপিয়ে হত্যার খবর। এ ঘটনার ৭২ ঘণ্টা পার না হতেই আবারো বিশ্ব গণমাধ্যমে বেশ গুরুত্বের সঙ্গে প্রকাশ করা হচ্ছে রাজধানী ঢাকার কলাবাগানে দুজনকে কুপিয়ে হত্যার খবর।

সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে কয়েকজন দুর্বৃত্ত উত্তর ধানমন্ডির ৩৫ নম্বর বাসায় ঢুকে ওই দুই জনকে কুপিয়ে হত্যা করেছে। এদের মধ্যে একজন বাংলাদেশের সমকামীদের প্রথম পত্রিকা রূপবানের সম্পাদক জুলহাস মান্নান। নিহত জুলহাস মান্নান ঢাকায় মার্কিন দাতা সংস্থা ইউএস এইডে কর্মরত ছিলেন। দ্বিতীয় জনের পরিচয় এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার আব্দুল বাতেন দুটি মরদেহ উদ্ধারের তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এ ঘটনার পর পরই ব্রিটেনের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম বিবিসি ‘বাংলাদেশে এলজিবিটি সম্পাদককে কুপিয়ে হত্যা’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

এতে স্থানীয় গণমাধ্যম ও কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, একজন নেতৃস্থানীয় সমকামী অধিকার কর্মী এবং বাংলাদেশের একমাত্র এলজিবিটি সাময়িকীর সম্পাদককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। পুলিশ বলছে, এতে আরো একজন নিহত ও একজন আহত হয়েছেন। রাজধানী ঢাকায় একটি বাসায় ঢুকে হামলা চালালে এ ঘটনা ঘটে।

একজন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষককে সন্দেহভাজন জঙ্গিরা কুপিয়ে হত্যার দুদিন পর এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। সন্দেহভাজন জঙ্গি হামলায় গত বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে বেশ কয়েকজন সেক্যুলার ব্লগার অথবা নাস্তিক লেখক এবং ধর্মীয় সংখ্যালঘু গোষ্ঠীর সদস্য খুন হয়েছেন।

বার্তাসংস্থা রয়টার্স ‘সন্দেহভাজন জঙ্গি হামলায় বাংলাদেশে দুজন নিহত’ শিরোনামের প্রতিবেদনে বলছে, সোমবার বাংলাদেশের রাজধানীতে সন্দেহভাজন জঙ্গিরা দুজনকে কুপিয়ে হত্যা করেছে, এদের মধ্যে একজন হিজড়াদের একটি পত্রিকার সম্পাদক। একই ধরনের হামলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষক খুন হওয়ার দুদিন পরেই এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। শনিবারের হামলার দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট জঙ্গিগোষ্ঠী।

এদের একজন জুলহাস মান্নান, তৃতীয়লিঙ্গের ম্যাগাজিন ‘রূপবান’ চালাতেন। পুলিশের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, পার্সেলের কথা বলে ঢাকায় তাদের অ্যাপার্টমেন্টে ঢুকে ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা এক প্রতিবেদনে বলছে, বাংলাদেশে বাসায় ঢুকে তৃতীয় লিঙ্গের ম্যাগাজিনের একজন সম্পাদকসহ দুইজনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মুখপাত্র মারুফ হোসাইন সরদার বার্তাসংস্থা এএফপিকে বলেন, অজ্ঞাত হামলাকারীরা কলাবাগানের একটি অ্যাপার্টমেন্টে ঢুকে দুজনকে কুপিয়ে হত্যা করেছে। আলজাজিরার প্রতিনিধি তানভির হায়দারের বরাত দিয়ে বলা হয়েছে, বেরিয়ে যাওয়ার সময় হামলাকারীরা বাসার নিরাপত্তা কর্মীকে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করেছে।

এর দুদিন আগে একজন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। চলতি মাসের শুরুতে ঢাকার রাস্তায় হাঁটার সময় নাজিমুদ্দিন সামাদ নামে ২৮ বছর বয়সী আইনের শিক্ষার্থীকে তিন হামলাকারী মোটর সাইকেলে করে এসে কুপিয়ে হত্যা করে। গত বছর চার ব্লগার এবং সেক্যুলার একজন প্রকাশক খুন হন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ইউএসএ ট্যুডে বলছে, রাজধানী ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি কর্মকর্তা, যিনি এলজিবিটি ম্যাগাজিনের সম্পাদক ছিলেন, দুর্বৃত্তরা কুপিয়ে হত্যা করেছে।

এছাড়াও পাকিস্তানের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ডননিউজ, এক্সপ্রেস ট্রিবিউন, ভারতের টাইমস অব ইন্ডিয়া, হিন্দুস্তান টাইমস, ব্রিটেনের দ্য গার্ডিয়ান, অস্ট্রেলিয়ার এবিসি নিউজসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সংবাদ মাধ্যম রাজধানীতে দুজনকে কুপিয়ে হত্যার খবর প্রচার করেছে।






মন্তব্য চালু নেই