মেইন ম্যেনু

রাজধানীর কলাবাগানে খুন জুলহাজ ‘সমকামী’ পত্রিকার সম্পাদক

রাজধানীর কলাবাগানে দুর্বৃত্তদের চাপাতির কোপে নিহত জুলহাজ মান্নান বাংলাদেশে সমকামীদের একমাত্র ম্যাগাজিন ‘রূপবান’ এর সম্পাদকীয় বোর্ডের সদস্য ছিলেন। খুন হওয়া আরেক জন তন্ময় তার বন্ধু বলে জানা গেছে। জুলহাজ ঢাকায় সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান মজিনার ঘনিষ্ট সহচর (প্রটোকল অফিসার) ছিলেন।

২০১৪ সালের জানুয়ারি মাসে এ পত্রিকার আত্মপ্রকাশ ঘটে। বাংলাদেশের মতো মুসলিম প্রধান দেশে এ ধরনের পত্রিকা প্রকাশ নিয়ে তখনই ব্যাপক বিতর্ক সৃষ্টি হয়। দেশের আলেমরা এটি নিষিদ্ধ করারও দাবি জানান।

২০১৫ সালের জানুয়ারিতে ‘রূপবান’ এর এক বছর পূর্তি উপলক্ষে বিবিসি বাংলাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জুলহাজ বলেছিলেন, রূপবান সমকাম নয় বরং সমপ্রেমে বিশ্বাসী মানুষের ভালবাসার অধিকারের বিষয়টি তুল ধরতে চায়। সমপ্রেমে বিশ্বাস করে এমন মানুষদের জীবনধারা, ভালোলাগা ও দুঃখ কষ্টের বিষয়টি তুলে ধরে রূপবান।

তিনি বলেছিলেন, বাংলাদেশে সমকামীরা অদৃশ্য জীবনযাপন করে কিন্তু আমরা জানাতে চাই যে এই সমাজেই আমরা আছি এবং আমরা আপনাদের পরিবারেই সদস্য।

রূপবানের সঙ্গে জড়িতরা বলেন, তারা সমকামী মানুষ ও হিজড়াদের অধিকার এবং মানবাধিকার নিয়ে কাজ করছেন।

এ ধরনের পত্রিকা প্রকাশে সমস্যায় পড়তে হয় বলেও উল্লেখ করেন জুলহাজ।

সমকামীদের অধিকার নিয়ে ম্যাগাজিন ‘রূপবান’ এর প্রথম সংখ্যাটি ছিল ৫৬ পৃষ্ঠার। আকর্ষণীয় প্রচ্ছদের এ ম্যাগাজিনটি ঢাকা থেকে প্রকাশিত হয়।

বাংলাদেশের লেসবিয়ান, গেই, বাইসেক্সুয়াল ও ট্র্যান্সজেন্ডার (এলজিবিটি) মানুষদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় এটি বিরাট এক পদক্ষেপ বলেই সেসময় দাবি করেন ম্যাগাজিনের সম্পাদক রাসেল আহমেদ।

সেসময় তিনি আন্তর্জাতিক বার্তাসংস্থা এপিকে বলেছিলেন, আমরা আশা করি এটা সমকামী সম্প্রদায়ের ব্যাপারে সচেতনতা বৃদ্ধি করবে। রূপবান ম্যাগাজিনের সম্পাদকের প্রত্যাশা, সমকামীদের জীবনযাপন পদ্ধতি ও বিভিন্ন দিক নিয়ে ম্যাগাজিনটিতে যেসব প্রতিবেদন প্রকাশিত হবে, তা মানুষের মধ্যে সহনশীল দৃষ্টিভঙ্গি তৈরিতে সক্ষম হবে।

প্রসঙ্গত, বর্তমান বিশ্বে অনেক দেশেই সমকামিতাকে বৈধতা দিলেও বাংলাদেশে নিষিদ্ধ। বাংলাদেশের আইন সমকামিতাকে এখনো প্রকৃতি বিরুদ্ধ মনে করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের শাস্তির বিধান রেখেছে। বাংলাদেশ দণ্ডবিধির ৩৭৭ ধারায় বলা হয়েছে, যে ব্যক্তি স্বেচ্ছাকৃতভাবে কোনো পুরুষ, নারী বা জন্তুর সাথে প্রকৃতিক নিয়মের বিরুদ্ধে যৌন সহবাস করেন, সেই ব্যক্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে বা দশ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং তদুপরি অর্থদণ্ডেও দণ্ডিত হবেন। এ ধারায় বর্ণিত অপরাধীরূপে গণ্য হওয়ার জন্য যৌন সহবাসের নিমিত্তে অনুপ্রবেশই যথেষ্ট বিবেচিত হবে।






মন্তব্য চালু নেই