মেইন ম্যেনু

রাজনীতিতে নেতিবাচক ভূমিকা থাকলে কোন উন্নয়ন সম্ভব নয়

শুধু মাত্র রাজনীতি কিংবা প্রাতিষ্ঠানিক ক্ষেত্রে নয়, যেকোন প্রকার উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে নেতিবাচক ভূমিকা থাকলে তা ব্যহত হবে। এমনটাই মনে করেন পোরশা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইফতেখার উদ্দীন শামিম। বুধবার উপজেলার নিতপুর স্কুল এন্ড কলেজের নবীন বরণ ও পাঠ্য পুস্তক বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

আরোও বলেন, পাশাপাশি রাজনৈতিক হিংসা বিদ্বেস ভুলে সবাইকে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে হবে। তাহলেই প্রতিটি কর্মে সফলতা অর্জন করা সম্ভব। কোন প্রতিষ্ঠান এমপিও ভুক্ত হলেই যে সেটা সর্বোত্তম প্রতিষ্ঠান তা নয়, এমপিও ছাড়াও অনেক প্রতিষ্ঠান দেশের মুখ উজ্জ্বল করে চলেছে। একটি প্রতিষ্ঠানের সুনাম বয়ে আনতে পারে কেবল মাত্র ভালো ফলাফলের মধ্য দিয়ে। অলস শ্রমিক দিয়ে যেমন কোন কাজ সম্পূর্ন করার আশা করা যায়না, ঠিক তেমনি অদক্ষ-অমনোযোগী শিক্ষক মন্ডলী দ্বারা ভালো রেজাল্টের স্বপ্ন দেখা যায়না। প্রতিটি শিক্ষকে নিজ নিজ দায়িত্ব কাঁধে নিয়ে পাঠদান প্রদানের অনুরোধ করেন তিনি।

এসময় শিক্ষার্থীদের দৃঢ় মনোভাব নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার উদাত্ত আহ্বান জানিয়ে বলেন, বিশেষ করে মেয়ে শিক্ষার্থীরা বাবা মায়ের অভাব অনটনের কারণে বেশিদূর লেখাপড়া করতে পারেন না। তাদের বাবা মাও সর্বদায় চিন্তায় থাকেন, কবে মেয়ের বিয়ে দিব। তিনি বর্তমান মৎস্য অফিসার-এর উদাহরণ দিয়ে বলেন, তিনি অত্যান্ত প্রান্তবর্তী এলাকা থেকে উঠে এসেছেন। তার একমাত্র কারণ, তার ছিল দু‘চোখ ভরা স্বপ্ন, আর মনে ছিলো দৃঢ় বিশ্বাস। এছাড়াও পুরোনো সভ্যতা ভুলে প্রতিটি ছেলে-মেয়েকে সু-শিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তোলার জন্য সকল অভিভাবকদের পরামর্শ দেন তিনি।

উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্য রাখেন, আবুল কালাম শাহ চৌধুরী। অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নিতপুর স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল খালেক, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মাহবুবুর রহমান, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা এলিজা খাতুন, ভায়িস চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম, আব্দুল হাই, অত্র কলেজের সকল কর্মকর্তা কর্মচারী, সকল শিক্ষার্থী সহ সাংবাদিক বৃন্দ। পরে ইউএনও এইচএসসি প্রথম বর্ষের সকল ছাত্র/ছাত্রীদের হাতে নতুন বই সহ ব্যক্তিগত তহবিল থেকে একটি করে ডাইরি উপহার দেন।






মন্তব্য চালু নেই