মেইন ম্যেনু

রাজনের বাবা-মাকে টাকা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

নির্মম ও পৈশাচিক নির্যাতনে সিলেটের কুমারগাঁওয়ে কিশোর সামিউল আলম রাজনের হত্যাকাণ্ডের বিচার দ্রুততম সময়ে শেষ করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সিলেটের জেলা প্রশাসক জয়নাল আবেদীনকে নির্দেশ দিয়েছেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি।

প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বুধবার বেলা দেড়টার দিকে খুন হওয়া রাজনের গ্রামের বাড়ি সিলেটের সদর উপজেলা কান্দিগাঁও ইউনিয়নের বাদেয়ালি গ্রামে গিয়ে এমন নির্দেশ দেন।

চুমকি রাজনের বাবা শেখ আজিজুর রহমান ও মা লুবনা আক্তারকে সান্ত্বনা প্রদান করেন। তিনি বলেন, ‘এই নৃশংস হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানানোর ভাষা নেই আমার।’ চুমকি প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে রাজনের বাবা-মায়ের হাতে এক লাখ টাকার অনুদান প্রদান করেন।

‘আর কখনোই যাতে এ ধরনের নৃশংস হত্যাকাণ্ড না ঘটে, সেজন্য খুনিদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।’ মন্তব্য করে প্রতিমন্ত্রী চুমকি রাজন হত্যার বিচার দ্রুত শেষ করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সিলেটের জেলা প্রশাসক জয়নাল আবেদীনকে নির্দেশ দেন।

রাজনের বাড়িতে প্রতিমন্ত্রীর সাথে ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সাবেক সাংসদ শফিকুর রহমান চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আশফাক আহমদ চৌধুরী, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সাংসদ আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী, সাবেক মহিলা সাংসদ জেবুন্নেসা হক প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই