মেইন ম্যেনু

রাজশাহীতে নর্থ-ওয়েষ্ট জোন পাওয়ার ডিষ্ট্রিবিউশন কোম্পানী বাতিলের দাবিতে গণ ছুটি

সরকার দুলাল মাহবুব, রাজশাহী থেকে : বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড রাজশাহী-রংপুর নিয়ে গঠিত ‘নর্থ-ওয়েষ্ট জোন পাওয়ার ডিষ্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেড’ বাতিলের এক দফা দাবীতে আজ মঙ্গলবার থেকে তিনি দিনের গণছুটিতে যাচ্ছেন কর্মকর্তা কর্মচারিবৃন্দ। গত সোমবার এক প্রতিবাদ মিছিলে ঘোষণা দেয়া হয়।

বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী নিজামুল হক সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় বক্তৃতা করেন, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী, প ও স সার্কেল-আব্দুর রশিদ, রাজশাহী প্রশিক্ষণ কেন্দ্র’র পরিচালক হাসিনা দিলরুবা, উপ-পরিচালক সুধীর রঞ্জন পোদার, উপ-পরিচালক (হিসাব), আহিদ, রবিউল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদ নেতা প্রকৌশলী তারেক মোশাররফ, জাতীয় বিদ্যুৎ শ্রমিক লীগ সিবিএ’র কেন্দ্রীয় নেতা যথাক্রমে যুগ্মসম্পদাক শহীদুল্লাহ ও সাংগঠিক সম্পদাক বশির আহম্মেদ. সিবিএ সভাপতি ও জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সোহেল কার্যকরী সভাপতি এ.একএম শহীদুল ইসলাম। সভা পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান মন্টু।

বক্তারা বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপুল পদত্যাগ ও শাস্তির দাবী করে হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন বলেন, ঐ কুখ্যাত প্রতিমন্ত্রী নিজের ভাইরাকে কোম্পানীর ম্যানেজিং ডিরেক্টরের পদে নিয়োগ দিয়ে গত এক বছর ধরে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের খাত থেকে কোটি কোটি টাকা বেতন ভাতা দিচ্ছে, গাড়ী, বাড়ির সুবিধা দিচ্ছে। এর জবাব বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রীকে দিতে হবে। বক্তারা বলেন, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের একজন কর্মীর জীবন থাকতে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডকে কোম্পানী করতে দেয়া হবে না।

বক্তারা উল্লেখ করেন ঘামে ও শ্রমে প্রতিষ্ঠিত বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড এখন দেশের একটি লাভজনক খাত। আমরা সংস্কারের বিপক্ষে নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ডিজিটাল বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড গড়েছি এবং তারই নেতৃত্বেই বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের বর্তমান বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড রেখেই আরও উন্নত করে দেশের সার্বিক কল্যাণ করতে চাই। কোন অপরাধে আমাদেরকে কোম্পানী করা হবে তা বোধগম্য নয়।

বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডে সারাদেশের ন্যায় রাজশাহী ও রংপুর জোনের কোন দপ্তরেই দাপ্তরিক কাজ কর্ম হয়নি এর ফলে রাজস্ব আদায় সিষ্টেম লস সি.আই.রেশিও-তে যে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে তার সকল দায়-দায়িত্ব বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী, বিদ্যুৎ সচিব ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যানকে বহন করতে হবে বলেও নেতৃবৃন্দ সমাবেশে সাফ জানিয়ে দেন। বিক্ষোভ সমাবেশ ও গণছুটি নেয়ার কার্যক্রম চলছে। অনেকে ছুটি নিয়ে কোম্পানী বাতিলের দাবি জানিয়েছেন। আগামী ১৬ আগস্টের মধ্যে বিউবোর্ড স্বাক্ষরিত চুক্তি বাতিল করা না হলে বৃহত্তর আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে জানান হয়।






মন্তব্য চালু নেই