মেইন ম্যেনু

রাণীনগরের নিখোঁজ ব্যবসায়ীর ২৩ দিনেও সন্ধান মেলেনি!

কাজী আনিছুর রহমান, রাণীনগর (নওগাঁ) : নওগাঁর রাণীনগরের কাপড় ব্যবসায়ী ইসলাম হোসেন (২৬) নিখোঁজ হওয়ার ২৩ দিন অতিবাহিত হলেও এখনো তার কোন সন্ধান মেলেনি । নিজ প্রতিষ্ঠান থেকে দোকানের মালা-মাল ক্রয়ের জন্য বেড় হওয়ার পর নিখোঁজ হন তিনি।এঘটনায় উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠায় রয়েছে পরিবারটি।

নিখোঁজ ইসলামের পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে,গত ১২ জুলাই বিকেলে দোকানের মালা-মাল কেনার জন্য তার নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উপজেলার কুবরা তলী থেকে নওগাঁর উদ্দেশ্যে বের হয়ে যান। এর পর থেকে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পায় পরিবারের লোকজন। তাকে অনেক খোঁজা-খুজি করে না পেয়ে গত ১৫ জুলাই রাণীনগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়। এর পর থেকে পরিবার তথা থানাপুলিশ এখন পর্যন্ত তার কোন সন্ধান করতে পারেনি। ইসলাম হোসেন উপজেলার চকাধীন গ্রামের মৃত আব্দুল জব্বারের ছেলে।

এব্যাপারে নিখোঁজ ইসলামের ভাই মামুন জানান, আমরা অনেক খোঁজা খুজি করে তার কোন সন্ধান করতে পারছিনা । নিখোঁজের কয়েক দিন পর কুষ্টিয়া এলাকার জনৈক একজন নিজেকে পুলিশের এস.আই পরিচয় দিয়ে পরিবারকে জানায় ইসলাম হোসেন কে ছুরিকাঘাত অবস্থায় এখানে পাওয়া গেছে । তাকে জরুরি ভিত্তিতে হাসপাতালে ভর্তি করার জন্য মোবাইল ফোনে ১০ হাজার টাকাও নেয় প্রতারক চক্র। কিন্তু কুষ্টিয়া যাবার পর থেকে ওই চক্রের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায় । তবে নিজ এলাকার কুবরা তলি বাজারের ইসলামের বন্ধু আব্দুর রশিদ নামের এক জনের সাথে ইসলামের কথা হয়েছে এমনটা খবর পেয়ে তার কাছেও গিয়েছিলাম কিন্তু বন্ধু রশিদ তার কোন সন্ধান দিতে পারেনি । তিনি আশংকা প্রকাশ করে সাংবাদিকদের জানান, কেউ হয়তো তাকে অপহরণ করে থাকতে পারে। এ নিয়ে পরিবারের লোকজন চরম উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠায় রয়েছে।

এব্যাপারে রাণীনগর থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল্লাহিল জামান জানান,আমরা বিষয়টি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করছি। যে মোবাইল নাম্বার থেকে ইসলাম হোসেনের পরিবারের সাথে প্রতারনা করে টাকা নিয়েছে ঘটনার পর থেকে আমরা সে নাম্বারগুলো বন্ধ পাচ্ছি । এছাড়া ব্যবহৃত নাম্বার গুলো যাচাই করে তাদেরকে সনাক্ত করার চেষ্টা করছি। পাশা-পাশি কেন ? কি কারনে সে নিখোঁজ হয়েছে সম্ভাব্য সব বিষয়গুলো ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে।#






মন্তব্য চালু নেই