মেইন ম্যেনু

রাণীনগরের সেই বিশ্ববাঁধ রাস্তাটি যেন এখন মরণ ফাঁদ ॥ নজর নেই কর্তৃপক্ষের

কাজী আনিছুর রহমান, রাণীনগর (নওগাঁ) : নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার মিরাট ইউপি’র প্রত্যন্ত এলাকার ধনপাড়া গ্রামের পার্শ্বে আত্রাই নদীর (ছোট যমুনা) বিশ্ব বাঁধ রাস্তাটি যেন মরণ ফাঁদ। এই গ্রামের মিঠাপুর বাজার হতে জামালগঞ্জের মোড় পর্যন্ত প্রায় ৩ কিলোমিটার রাস্তা বর্তমানে বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, শুধুমাত্র ইট বিছানো এই রাস্তাটি মাঝে মাঝে বড় বড় খানা-খন্দকে ভরপুর। কোন কোন স্থানে ইট উঠে গিয়ে ছোট ছোট পুসকুনির আকৃতি হয়েছে। এতে প্রতিনিয়তই এলাকার মানুষদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে আর প্রতিদিনই ঘটেই চলেছে ছোট-বড় দুর্ঘটনা।

এই রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত মিরাট, ধনপাড়া, বান্দাইখাড়া,আত্রাই সহ অনেক গ্রামের সাধারণ মানুষ যাতায়াত করে। প্রত্যন্ত এই এলাকার মানুষদের চলাচলের জন্য এটিই একমাত্র রাস্তা। রাস্তার মাঝে মাঝে ইট ও মাটি উঠে গিয়ে প্রায় ১ হতে ২ফুট পর্যন্ত গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।

বর্ষা মৌসুমে এই সব গর্তে পানি জমে তৈরি হয়েছে ছোট ছোট পুসকুনির। রাস্তাটির এই অংশটুকু চলাচল করতে হয় জীবনের ঝুকি নিয়ে। প্রতিদিনই এই সব এলাকার মানুষদের নিত্যদিনের প্রয়োজন মেটাতে মরণ ফাঁদ নামক এই রাস্তাটিই ব্যবহার করতে হচ্ছে। এই রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত ব্যাটারী চালিত অটো রিক্সা, ভটভটি ও মটরসাইকেল সহ মাঝারি আকারের যানবাহন চলাচল করার সময় এই সব গর্তে যানবাহন উল্টে গিয়ে হতাহতের ঘটনা ঘটেই চলেছে।

অচিরেই যদি রাস্তাটির সংস্কার করা না হলে চলাচলের জন্য অনুপযোগি হয়ে পড়বে বলে স্থানীয়রা জানান। প্রতি বছর উপজেলার বিভিন্ন এলাকার রাস্তা সংস্কারের কাজ চললেও কয়েক গ্রামের হাজার হাজার মানুষের চলাচলের একমাত্র এই রাস্তাটির সংস্কারের দিকে নজর নেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের।

ধনপাড়া গ্রামের রহিম উদ্দিন (৬০), মো: হাফিজুর (৩০), আসলাম (৩১) জানান, আমাদের চলাচলের একমাত্র মাধ্যম এই রাস্তাটি। কয়েক দশক পেরিয়ে গেলেও এই রাস্তাটি নতুন করে সংস্কার করার কোন উদ্দ্যোগ নেই কারো। আমরা কয়েক গ্রামের বাসিন্দারা বিভিন্ন মহলে লিখিত অভিযোগ দিয়েও কোন কাজ আজ পর্যন্ত হয়নি।

এব্যাপারে রাণীনগর উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) মো: সাইদুর রহমান মিঞা জানান, রাস্তাটির সংস্কার কাজের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবর চাহিদা পত্র দেওয়া আছে। বরাদ্দ পাওয়া মাত্রই সংস্কার কাজ শুরু করা হবে।#






মন্তব্য চালু নেই