মেইন ম্যেনু

ছাত্রী নব-বধুকে পালিয়ে নিয়ে যাবার ঘটনায়

রাণীনগরে শিক্ষকের চাকুরি চ্যুতের দাবি শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের

কাজী আনিছুর রহমান, রাণীনগর (নওগাঁ) : নওগাঁর রাণীনগরে স্কুল শিক্ষক কর্তৃক এক ছাত্রী নব-বধুকে পালিয়ে নিয়ে যাবার ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক তোলপার সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় ওই স্কুলের শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকরা পৃথক পৃথকভাবে ওই শিক্ষকের চাকুরী চ্যুতের দাবিতে প্রধান শিক্ষক বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন। এঘটনায় থানায় একটি মামলাও দায়ের করা হয়েছে ।

এলাকা বাসি সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার শিম্বা গ্রামের নবির উদ্দীনের ছেলে ওসমান গনি (৫৫) দীর্ঘ দিন ধরে উপজেলার বিল পালশা-কৃষ্ণপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে শরীর চর্চার শিক্ষক হিসেবে কর্মরত রয়েছে। এ অবস্থায় ওই স্কুল থেকে গত ২০১৫ সালে এসএসসি পাশ করে বেড় হয়ে যাওয়া জনৈক এক ছাত্রীকে বিয়ের মাত্র ২৬ দিনের মাথায় গত ০২ আগষ্ট পালিয়ে নিয়ে বিয়ে করেন শিক্ষক ওসমান গনি। গত ৮ জুলাই জনৈক ওই ছাত্রীর বিয়ে হয় উপজেলার করজগ্রামের প্রবাসী সাইদুর রহমানের সাথে। সাইদুর রহমান জানান, ওই দিন নব বধু প্রায় ৩ লক্ষ টাকা এবং প্রায় পৌনে ৪ ভরি বিভিন্ন স্বর্ণের গহনা নিয়ে দুপুরে শিক্ষক ওসমানগনির সাথে পালিয়ে যায় । পালিয়ে যাবার ৫ দিন পর গত রবিবার রাতে সাইদুরের চাচা হামিদুল ইসলাম বাদী হয়ে নব-বধু ও শিক্ষক ওসমান গনিকে আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ঘটনাটি জানা জানি হলে এলাকায় ব্যাপক তোলপার সৃষ্টি হয়। গত শনিবার ওই স্কুলের শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকরা বিক্ষোভ করেছেন বলে একাধীক সুত্রে জানাগেছে। ৫৫ বছর বয়সে শিক্ষার্থীকে নিয়ে পালিয়ে নিয়ে যাবার কারনে শিক্ষক ওসমান গনির চাকুরি চ্যুত করার দাবিতে গত কাল সোমবার দুপুরে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক বরাবর শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা পৃথক পৃথকভাবে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।

এব্যাপারে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক খোরশেদ আলম জানান,শিক্ষক ওসমাস গনিকে চাকুরি চ্যুত করার দাবিতে শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকরা পৃথক পৃথক ভাবে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন । দু/এক দিনের মধ্যে বসে আমাদের বিধি মতে ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

ওইস্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মির হোসেন জানান,ঘটনাটি নিয়ে ব্যপক তোলপার চলছে । যথাযথ ব্যবস্থার জন্য আমরা বসে সিদ্ধান্ত নিবো।

এব্যপারে রাণীনগর থানার ওসি (তদন্ত ) আব্দুল্লাহিল জামান জানান, নব বধুকে নিয়ে স্কুল শিক্ষক পালিয়ে যাবার সময় নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার চুরি করে নিয়ে যাবার ঘটনায় সাইদুর রহমানের চাচা হামিদুল ইসলাম বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। আমরা বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখছি ।






মন্তব্য চালু নেই