মেইন ম্যেনু

রাণীনগর থেকে অপহৃত স্কুল ছাত্রী বগুড়ায় উদ্ধার॥ গ্রেফতার ৪

কাজী আনিছুর রহমান, রাণীনগর (নওগাঁ) থেকে : নওগাঁর রাণীনগর থেকে স্কুল পড়–য়া ছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করা হলে পুলিশ অপহৃতা স্কুল ছাত্রী মিতু আক্তার (১৩) কে বগুড়ার আদমদিঘী উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রাম থেকে উদ্ধার সহ ঘটনার সাথে জড়িত ৪জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, উপজেলার দূর্গাপুর গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে শাহীন (২২), মৃত আব্দুস সামাদের ছেলে সোহেল (২৮), আবুল কালাম আজাদের ছেলে সোহেল রানা (১৮), ভবানীপুর গ্রামের দুলাল হোসেনের ছেলে সাদ্দাম হোসেন (১৮)। গ্রেফতারকৃতদের গতকাল সোমবার দুপুরে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলা ভবানীপুর গ্রামের মোশারফ সরদারের মেয়ে মিতু আক্তার কুজাইল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী। সে নিয়মিত স্কুলে যাতায়াত করার সময় গ্রেফতারকৃত আসামী শাহীন রাস্তা-ঘাটে মিতুকে প্রতিনিয়ত উত্যক্ত, অশ্লালিন কথাবার্তা ও কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। বিষয়টি মিতু তার বড় ভাই মহিদুল ইসলামকে জানালে সে শাহীনকে নিষেধ করে। তখন থেকে আসামীরা আরোও বেপরোয়া হয়ে মিতুকে মাঝে মধ্যে অপহরণের হুমকি দিয়ে আসছিল। এর ধারাবাহিকতায় গত ০৯ জুলাই সকাল ৮টার দিকে মিতু তার বাবার বাড়ি ভবানীপুর গ্রাম থেকে কুজাইল বালিকা বিদ্যালয়ে প্রাইভেট পড়ার উদ্দ্যেশে আসলে পথিমধ্যে বিদ্যালয়ের পার্শ্বে পাকা রাস্তার মোড়ে পৌঁছা মাত্রই গ্রেফতারকৃত আসামীরা কৌশলে মিতু আক্তার কে অপহরণ করে নিয়ে যায়। ঘটনাটি জানা-জানি হলে সম্ভাব্য সকল জায়গায় খোঁজা খোঁজি করে সন্ধান না পেয়ে থানায় মিতুর ভাই মহিদুল ইসলাম গত রবিবার দুপুরে বাদি হয়ে ৫ জনকে আসামী করে মামলা করলে রাণীনগর থানার এসআই শফিকুর রহমান গোপন সংবাদের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ফোর্স নিয়ে রবিবার রাতে বগুড়া জেলার আদমদিঘী উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের জাকির হোসেনের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ঘটনার মূল হোতা শাহীন সহ ৪ জনকে গ্রেফতার করে গতকাল সোমবার দুপুরে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল লতিফ খান জানান, মামলা দায়েরের সাথে সাথে অভিযান চালিয়ে অপহৃতাকে উদ্ধার সহ এজাহার নামীয় ৫ জনের মধ্যে ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এঘটনার সাথে আরো যারা জড়িত আছে প্রয়োজনীয় তদন্ত স্বাপেক্ষে সবাইকে আইনের আওয়তায় আনা হবে।






মন্তব্য চালু নেই