মেইন ম্যেনু

রাণীনগর সদর-আবাদপুকুর-আত্রাই সড়কের বেহালদশা ॥ নজর নেই কর্তৃপক্ষের

নওগাঁর রাণীনগর সদর-আবাদপুকুর-আত্রাই সড়কের মাঝে মাঝে অসংখ্য বড় বড় খানা-খন্দকে ভরা। দেখে মনে হবে এ যেন রাস্তা নয় ছোট ছোট পুসকুনি। এতে প্রতিনিয়তই ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে সাধারন যাত্রীদের আর ঘঠেই চলেছে ছোট-বড় দুর্ঘটনা। তবুও নজর নেই কর্তৃপক্ষের।

রাণীনগর উপজেলার প্রাণকেন্দ্র বিএনপি’র মোড়, উপজেলা পরিষদ যাওয়ার মাঝে, রাণীনগর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে এবং আবাদপুকুর-সিম্বা বাজারে যাওয়ার মাঝে সোনাকানিয়া নামক স্থান সহ উপজেলার প্রধান প্রধান সড়কগুলোর মাঝে মাঝে পাঁকা উঠে যাওয়াই বৃষ্টির পানি জমে জমে সৃষ্টি হয়েছে বড় বড় খানা-খন্দক। কর্তৃপক্ষের নজর না থাকায় দীর্ঘদিন যাবত এইসব বড় বড় গর্ত ভরাট সহ রাস্তা সংস্কার না করায় আজ রাস্তা নামের দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। রাণীনগর উপজেলা ধান চাষের জন্য বিখ্যাত বলে এই উপজেলার রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত বড় বড় যানবাহন যেমন ট্রাক্টর, মিনি ট্রাক, ভটভটি-লছিমন, অটোভ্যান, ভ্যান চলাচল করে।

এতে করে রাস্তাগুলোর সমস্যা দিন-দিন আরও প্রকট আকার ধারণ করছে। প্রতি বছর উপজেলার বিভিন্ন এলাকার রাস্তা সংস্কারের কাজ চললেও উপজেলা সদরের এই ব্যস্ততম রাস্তাটির সংস্কারের দিকে নজর নেই কর্তৃপক্ষের। বিশেষ করে রাণীনগর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান গেটের সামনের রাস্তায় বড় বড় খানা-খন্দক হওয়াই এই বিদ্যালয় সহ মহিলা অনার্স কলেজে যাতায়াত করতে প্রতিক্ষণই নানা ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের।

এই রাস্তাটি রাণীনগর-আবাদপুকুর-আত্রাই হতে জেলা শহর নওগাঁ যাওয়ার একমাত্র পথ হওয়ায় শত দূর্ভোগকে উপেক্ষা করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে যাত্রী সাধারণদের। অচিরেই এই দুর্ভোগ হতে উত্তোরণ পেতে চান যাত্রী সাধারণ ও স্থানীয় এলাকাবাসী।

এব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী আবু মোঃ শফিল আজম জানান, বর্তমানে উপজেলার প্রধান প্রধান সড়কগুলোর বেহাল দশা, জরুরি ভিত্তিতে সংস্কারের জন্য উপরমহল বরাবর লিখিত অভিযোগ পাঠিয়েছি। বরাদ্দ পেলেই সড়ক সংস্কারের কাজ শুরু করা হবে।






মন্তব্য চালু নেই