মেইন ম্যেনু

রাবির টুকিটাকি চত্বর যেন ময়লার ভাগাড়

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) টুকিটাকি চত্বর যেন ময়লার ভাগাড়। চত্বরের বিভিন্ন স্থানে দিনের পর দিন আবর্জনা স্তুপ পড়ে আছে। এতে করে টুকিটাকিসহ আশেপাশের পরিবেশ দূষিত হলেও সেদিকে ভ্রুক্ষেপ নেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের।

স্তুপাকারে পড়ে থাকা ময়লার দুর্গন্ধে কমে গেছে টুকিটাকি চত্বরের আড্ডা। শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম এ আড্ডাস্থল ছেড়ে বসছেন অন্যত্র। এমন একটি জায়গার এ অবস্থার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দিকে অবহেলার অভিযোগ তুলছেন শিক্ষার্থীরা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, টুকিটাকির চারিদিকে ময়লা, আবর্জনার স্তুুপ পড়ে আছে। বেশ কিছুদিন আগে ছাত্রলীগের ক্লিন ক্যাম্পাস, সেভ ক্যাম্পাস কর্মসূচির সময় টুকিটাকি চত্বরের ময়লা আবর্জনা পরিস্কার করা হলেও পরবর্তী সময়ে এ কর্মসূচি আর চোখে পড়েনি। টুকিটাকির সামনে আবর্জনা ফেলার একটি ডাস্টবিন থাকলেও তা নিয়মিত পরিস্কার করা হয় না। ফলে প্রতিনিয়ত সেখান থেকে দূর্গন্ধ ছড়াচ্ছে বলে শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন।

1

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী আসাদুল হক বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলন স্থান যেনো টুকিটাকি চত্বর। হল থেকে এসে প্রতিদিন সকালে নাস্তা করে ক্লাসে যাই। আশে পাশে কোন ভালো খাবারের দোকান না থাকায় বাধ্য হয়েই টুকিটাকির নোংরা পরিবেশে খেতে হয়। তাছাড়া ক্লাসের মাঝে একটু বিরতি পেলেই বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতে টুকিটাকি চত্বরে চলে আসি। এ ছাড়া একাধিক শিক্ষার্থীরা জানান, টুকিটাকির খাবারের পরিবেশ মানসম্মত নয়। বৃষ্টির দিনে বসার মতো তেমন কোনো পরিবেশ থাকে না।

2

এ বিষয়ে ছাত্র উপদেষ্টা প্রফেসর মো. সাদেকুল আরেফিন মাতিন বলেন, টুকিটাকি ক্যাম্পাসের মূল জায়গা অথচ প্রায়ই নোংরা থাকে। দায়িত্বে অবহেলার কারণে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন জায়গায় এরকম ঘটনা চোখে পড়ছে।

জানতে চাইলে স্টুয়ার্ড রাখার সহকারী রেজিস্টার মো. ইলিয়াস হোসেন বলেন, খুব শীঘ্রই এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

3



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই