মেইন ম্যেনু

রাসিকের দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়রের বৈধতা নিয়ে রুল জারি

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র হিসেবে আওয়ামী লীগ সমর্থিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিজাম উল আযীমের বৈধতা নিয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।

রাজশাহী মহানগরীর শিরোইল এলাকার বাসিন্দা জৈনক নজরুল ইসলামের এক রিটের প্রেক্ষিতে গত ৫ জুলাই সুপ্রীম কোর্টের বিচারক নাসিমা হায়দার ও মোস্তফা জামান ইসলামের দ্বৈত বেঞ্চে ওই রুল জারি করেন।

আগামী ২ আগস্ট দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র নিজাম উল আযীমসহ স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার, রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনার, জেলা প্রশাসক, জেলা পুলিশ সুপার, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের উপসচিবকে ওই রুলের জবাব দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এদিকে, জারি করা ওই রুলে উল্লেখ করা হয়েছে, স্থানীয় সরকার (সিটি কর্পোরেশন) আইন-২০০৯ এর ১২ (২) অধ্যাদেশ অনুযায়ী আইনসম্মত কর্তৃপক্ষ ছাড়াই আর্থিক ও প্রশাসনিক ক্ষমতা প্রদান করে বিবাদী ২১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের দায়িত্বভার প্রদাণের ঘোষণা দিয়ে প্রজ্ঞাপন (মেমো নং ৪৫.০০.০০০০.০১৭.১৮.০৩২.১৫ (পার্ট-১) ৩২৯, তারিখ-৩১.০৫.২০১৫, জারি করেন বিবাদী স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের একজন উপসচিব।

তবে এ ঘোষণা কেন বেআইনি হবে না তা জানতে চেয়েছেন আদালত। এ ছাড়া আগামী ছয় মাস ওই প্রজ্ঞাপনের স্থগিতাদেশও দেওয়া হয়।

এদিকে, রুল জারির তিন সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও এ সংক্রান্ত আদালতের আদেশ রাসিকে এসে পৌঁছায়নি বলে দাবি করেছেন বর্তমান দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র নিজাম উল আযীম।
তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় তাকে দায়িত্বভার দিয়েছে। এ ছাড়া পরিষদ তার কর্মকা-ের বৈধতা দিয়েছেন। তবে উচ্চ আদালতের নিদের্শনা হাতে পেলে তিনি সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান।

এর আগে গত ৭ মে নগরীতে পুলিশ কনস্টেবল সিদ্ধার্থ সরকার হত্যামামলাসহ চারটি মামলায় আদালত অভিযোগপত্র গ্রহণ করায় রাসিক মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে সাময়িক বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। পরে ওই আদেশের চ্যালেঞ্জ করে পাল্টা রিট করেন বুলবুল। কিন্তু তা খারিজ হয়ে যায়। সরকারবিরোধী আন্দোলনের পর পুলিশের দায়ের করা হত্যা, বিস্ফোরক ও নাশকতার অন্তত: ১৭টি মামলার আসামি হয়ে ফেরারি হয়েছেন রাসিক মেয়র।

পরে প্যানেল মেয়রদের কাটিয়ে গত ১ জুন আওয়ামী লীগ পন্থি কাউন্সিলর নিজাম উল আযীমকে রাসিকের দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র হিসেবে দায়িত্ব দেয় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়।






মন্তব্য চালু নেই