মেইন ম্যেনু

রাস্তায় প্রস্রাব করলে হাতে ফুল, গলায় মালা দিচ্ছে পুলিশ! (ভিডিওসহ)

রাস্তার ধারে দেয়ালে বড় করে লেখা আছে, ‘এখানে প্রস্রাব করা নিষেধ, প্রস্রাব করলে ১০০ টাকা জরিমান’। কে শোনে কার কথা, সেই দেয়াল লিখনকে সামনে রেখেই প্রস্রাব করে চলে যান পথচারী। ভাবখানা এমন যে তারা পড়ালেখাই জানেন না। আসলে চোরে না শোনে ধর্মের কাহিনি।

রাস্তায় বেরিয়ে এদিকে সেদিক তাকিয়ে দেয়াল ঘেঁষে প্রস্রাব করাটাকে তারা কিছুই মনে করেন না। যাদের এটা অভ্যাস তাদেরকে হাজার ‘ধর্মের কাহিনি’ শুনিয়েও বাগে আনা যায় না।

কিন্তু পুলিশ তো বসে থাকার পাত্র নয়, ওইসব মানুষকে হুঁশ ফেরাতে এক অভিনব পন্থা নিয়েছে। কোনো লাঠিচার্জ বা জরিমানা নয়, রাস্তায় প্রকাশ্যে প্রস্রাবকারীদের ধরে ধরে গলায় পরিয়ে দিচ্ছেন মালা। হাতে গুঁজে দেয়া হচ্ছে ফুল। মালা পরিয়ে পুলিশ ভাবখানা এমন করে যে, আহা কী ‘মহান’ কাজটাই না করেছেন আপনি!

রাস্তার ধারে প্রস্রাব বন্ধ করতে এই অভিনব পন্থা হাতে নিয়েছে ভারতের হায়দরাবাদের মহানকালী ট্রাফিক পুলিশ স্টেশনের কর্মীরা। সেকেন্দরাবাদ রেলস্টেশন এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় একদিনেই মোট ২৬ ‘কীর্তিমান’কে ধরে এ ‘সংবর্ধনা’ দিয়েছে সেখানকার পুলিশ। গলায় মালা পরিয়ে তাদের বলা হয়, আর এখানে সেখানে প্রস্রাব না করে সরকারি টয়লেট ব্যবহার করতে।

তাই ধরা পড়ার পর পুলিশের কাছ থেকে গলায় মালা পেয়ে ওই ২৬ জন লজ্জায় মাথা হেঁট। কথা দিয়েছেন, আর যাই করুন, প্রকাশ্যে প্রস্রাব করবেন না তারা।

এখন আপনিই বলুন, ওইসব মানুষকে জরিমানা করাটাই ভালো না একটু খরচ করে ‘সংবর্ধনা’ দেয়াটাই ভালো?

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন






মন্তব্য চালু নেই