মেইন ম্যেনু

রাস্তা আটকিয়ে প্রতিবাদ নয় : কাদের

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলন প্রসঙ্গে সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, প্রতিবাদ ক্যাম্পাসে, রাস্তা আটকিয়ে নয়।

‘ছাত্রছাত্রীদের আন্দোলনের বিরোধিতা আমি করছি না’। তবে প্রতিবাদের নামে যারা রাজধানীকে ১৮ ঘণ্টা অচল করে রেখেছে, এটার সমর্থন আমি করি না।’

শুক্রবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে সম্মিলিত সঙ্গীত শিল্পী সোসাইটি আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্ত্যবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সরকারের কোনো সিদ্ধান্তে ভুল হয়ে থাকলে গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমে সমাধানের চেষ্টা করুন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, এমনিতেই রাজধানীতে যানজটের কারণে জনজীবনে ব্যাপক দুর্ভোগ লেগে আছে। আমরা সবাই মিলে চেষ্টা করছি যানজট কমানোর। এর ভেতর রাস্তা আটকিয়ে আন্দোলনের কোনো মানে হয় না।

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল এবং ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে শিক্ষার্থীদের টিউশন ফির ওপর সাড়ে ৭ শতাংশ ভ্যাট আরোপের প্রতিবাদে গত কয়েক মাস ধরেই আন্দোলন চালিয়ে আসছে শিক্ষার্থীরা।

বুধবার রামপুরায় ইস্ট-ওয়েস্ট উইনিভার্সিটির শিক্ষার্থীদের কর্মসূচিতে পুলিশ লাঠিপেটা করলে- এর প্রতিবাদে এবং ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবিতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে রাস্তায় নামে আন্দোলনকারীরা। এতে যানজটে পুরো রাজধানী কার্যত অচল হয়ে যায়।

এরপর জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এক বিবৃতিতে জানায়, টিউশন ফির ওপর এই ভ্যাট আলাদা করে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আদায় করা হবে না, বরং বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এই ভ্যাট পরিশোধ করবে।

‘বিদ্যমান টিউশন ফি’র মধ্যে ভ্যাট ‘অন্তর্ভুক্ত থাকায়’ টিউশন ফি বাড়ার কোনো ‘সুযোগ নেই বলেও এতে উল্লেখ করা হয়।

এরপর বৃহস্পতিবার রাতে সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, “এই ভ্যাট তো ছাত্রদের দিতে হবে না। এটা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে দিতে হবে। এটা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ স্বীকার করেছে।”






মন্তব্য চালু নেই